কোটি কোটি ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য বেহাতের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুককে রেকর্ড ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা করছে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি)।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক রাজনৈতিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ২০১৪ সাল থেকে এসব তথ্য হাতিয়ে নিয়েছিল বলে অভিযোগ।

বিবিসি জানায়, প্রায় ৮ কোটি ৭০ লাখ ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত ও অপব্যবহারের অভিযোগ নিয়ে এফটিসি গত বছরের মার্চ থেকে তদন্তে নামে।

মার্কিন এ নিয়ন্ত্রক সংস্থার কমিশনাররা ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা রক্ষায় ব্যর্থতায় ফেইসবুককে রেকর্ড ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা করেন বলে শুক্রবার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে জানায় ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

৩-২ ভোটে এ জরিমানার বিষয়টি অনুমোদিত হয়। রিপাবলিকান কমিশনাররা এ জরিমানার পক্ষে থাকলেও ডেমোক্রেটরা ছিলেন বিপক্ষে, জানায় সূত্রগুলো।

পরে অন্যান্য মার্কিন সংবাদমাধ্যমও একই তথ্য দেয়। এসব প্রতিবেদন নিয়ে কোনো মন্তব্য নেই বলে জানিয়েছে এফটিসি ও ফেইসবুক।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা জরিমানা করলেও এখন এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবে মার্কিন বিচার বিভাগের সিভিল বিভাগ।

চূড়ান্ত ওই সিদ্ধান্ত আসতে কত সময় লাগবে তা স্পষ্ট নয় বলে ভাষ্য সূত্রগুলোর।

শেষ পর্যন্ত এ ৫০০ কোটি ডলার জরিমানা বহাল থাকলে, তা হবে কোনো প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের ওপর এফটিসির আরোপ করা সর্বোচ্চ জরিমানা।

গত বছরের অক্টোবরে যুক্তরাজ্যের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফেইসবুককে ৫ লাখ পাউন্ড জরিমানা করেছিল।

যুক্তরাষ্ট্রে জরিমানার পরিমাণ ৫০০ কোটি ডলার হতে পারে বলে আগেই অনুমান করেছিল ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ।

লন্ডনভিত্তিক কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ২০১৬ সালের যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে কাজ করেছিল।

তারা একটি অ্যাপের মাধ্যমে কয়েক কোটি ফেইসবুক গ্রাহকের তথ্য হাতিয়ে তা প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারের কৌশল নির্ধারণে কাজে লাগিয়েছিল বলে পরে ফাঁস হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য