দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে আটক উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

দিনাজপুর সমন্বিত দুদক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আহসানুল কবির পলাশ জানান, ২০ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে হাতেনাতে গ্রেফতারকৃত পার্বতীপুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রেজাউল করিম (৫৫)কে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তার বিরুদ্ধে দুদক কার্যালয়ে দুদক আইনে আজ বুধবার সকালে মামলা দায়ের করা হয়।

যার দুদকের মামলা নং- ১, তারিখ ১০/৭/১৯ইং। গ্রেফতারকৃত রেজাউল করিমকে আজ বুধবার দুপুর সাড়ে ৩টায় দিনাজপুর স্পেশাল জজ আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাকে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দেন। বিকেলে আদালত থেকে দিনাজপুর জেল কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

সূত্রটি জানায়, মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় পার্বতীপুর উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে ২০ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহণের সময় রেজাউল করিমকে ঘুষের টাকাসহ আটক করা হয়। উল্লেখ্য যে, পার্বতীপুর উপজেলায় ১টি সরকারী পুকুর খননের জন্য দরপত্রের মাধ্যমে ঠিকাদার সবুজ ইসলাম কাজটি পায়।

পুকুরটি খনন শেষে ৩২ লক্ষ টাকা বিল প্রদানের জন্য কাগজপত্র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে পেশ করা হয়। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বিল সম্পাদনের জন্য ঠিকাদারের নিকট ৫ লক্ষ টাকা ঘুষ দাবী করে। ওই বিলের প্রাথমিক পর্যায়ে ২০ হাজার টাকা ঘুষ প্রদানের সময় দুদক কর্মকর্তা তাকে হাতেনাতে আটক করতে সক্ষম হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য