ঘোড়াঘাট( দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে চলতি বছরে এস, এস, সি, পাস কান্তা রানী দেব (১৬) নিখোঁজ হওয়ার ১৩ দিন অতিবাহিত হলেও, আজ পর্যন্ত উদ্ধার হয়নি।

সে উপজেলার রানীগঞ্জ সরকারি ২য় দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজ থেকে চলতি বছরে এস এস সি পাস করে।রানীগঞ্জ নুরপুর গ্রামের দিনমুজরী কাঞ্চন দেব ও মুক্তি দেবের কন্যা। গত ২৬ জুন রানীগঞ্জ সরকারি স্কুল অ্যান্ড কলেজে যাওয়ার কথা বাড়ি থেকে বের হয়।

তার পর বাড়িতে আর ফিরে আসেনি।পরিবারের লোকজন খোজঁ খবর করে না পেয়ে সন্ধ্যায় ঘোড়াঘাট থানায় মেয়ে নিখোঁজ সম্পর্কে সাধারন ডায়েরি করেন কাঞ্চন দেব। ।তাকে হত্যা বা গুম না পাচার করা হয়েছে এ নিয়ে উৎকন্ঠায় জিবন কাটছে অপহৃতা দিন মুজরী পিতা -মাতার।

অনুসন্ধানে জানা গেছে,কশিগাড়ি গ্রামের রজ্জব আলী মাষ্টারের ছেলে পলাশ মিয়া ও নুরপুর গ্রামের নিরাঞ্জন গুন্দু দুই বন্ধু মিলে রানীগঞ্জ মাইলা নদীর সড়কে কোচিং সেন্টার দেয়।সেই কোচিং সেন্টারে কোচিং করতো কান্তা রানী দেব।

অভাবের সংসারে সুযোগ বুঝে কোচিং এর পরিচালক ১ সন্তানের জনক পলাশ মিয়া মাষ্টার নিরহ দিন মুজরীর কন্যা কান্তা দেব কে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে। নাবালিকা কান্তাকে অপহরণ করেছে পলাশ মিয়া মাষ্টার জানান, অপহৃতার পিতা কাঞ্চন দেব।

মেয়ের সন্ধান চেয়ে স্হানীয় প্রশাসন,জনপ্রতিনিধি ও সমাজপতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে কাঞ্চন দেব।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য