দিনাজপুর সংবাদাতাঃ সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি জন্ম, সংস্কৃতি ও ইতিহাসকে স্মরণ করে পথ চললে জীবন হবে আলোকিত এবং দেশ ও জাতির হবে উন্নয়ন উল্লেখ করে বলেন, ১৯৫৫ সালে আমি দিনাজপুরে জন্মগ্রহন করি। তাই এ মাটি থেকেই যে কোন উন্নয়ন ও অগ্রগতি ধারাবাহিকতা দিনাজপুর থেকে শুরু করতে চাই। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্থপতি। নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস ও বাঙ্গালী সংস্কৃতিকে জানাতে হবে। বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস না জানলে বাংলাদেশে জন্ম নেয়াটাই বিফলে যাবে।

গতকাল মঙ্গলবার প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি দিনাজপুরে মহিলা হস্তশিল্প ও কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক একাডেমী, দিনাজপুর সরকারী শিশু পরিবার, রাজবাড়ী, শিল্পকলা একাডেমী, জেলা সরকারী গণগ্রন্থাগার পরিদর্শনকালে পৃথক পৃথক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, সাংবাদিকরা জাতির বিবেক, তারা কলম সৈনিক, শব্দ সৈনিক। নিরপেক্ষ হয়ে দল-মত নির্বিশেষে সমাজ ও জনগণের জন্য সাংবাদিকদের কাজ করে যেতে হবে। আওয়ামী লীগ সরকার সাংবাদিকদের কল্যাণে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে।

এসময় দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলালের পরিচালনায় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) নুরুজ্জামান শরিফ, মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি, জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম।

প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ দিনাজপুরে ২৫ কোটি টাকা ব্যায়ে একটি মাল্টিপারপাস কালচারাল সেন্টার, প্রতিটি স্কুলে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি চারন ও বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যাল স্থাপন এবং ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক একাডেমী, দিনাজপুর প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে অর্থনৈতিকভাবে সহায়তার আশ্বাস দেন।
এর পুর্বে সকালেই প্রতিমন্ত্রী তার জন্মস্থান দিনাজপুর শহরের ক্ষেত্রীপাড়ায় যান এবং কিছু সময় অতিতের স্মৃতিচারণ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য