সুস্থ থাকতে এবং পরিবারকে সুস্থ রাখতে কে না চান? কিন্তু চাইলেই তো আর হাতের চাঁদ মিলবে না, আপনাকে প্রতিদিনের জীবনে সেই নিয়মগুলিকে মেনেও চলতে হবে। তার কয়েকটিকে নিয়ে একটি তালিকা তৈরি করে দিলাম আমরা। দেখুন তো, তা কাজে লাগে কিনা!

ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি:
প্রথমে নিজেকে পরিচ্ছন্ন রাখার অভ্যেসটা তৈরি করুন, তাতে আপনাকে দেখে অন্যরাও ভালো শিক্ষা পাবে। রোজ স্নান করুন, প্রয়োজন হলে একাধিকবার। চুলে শ্যাম্পু মাখাটাও গায়ে সাবান মাখার মতোই জরুরি। ব্যক্তিগত অঙ্গ পরিচ্ছন্ন রাখুন, তা না হলেই সেখানে নানা রকম ইনফেকশন, র‍্যাশ ইত্যাদি দেখা দেয়। স্নানের পর গা এবং চুল শুকনো করে মুছে নেবেন। আর্দ্র অবস্থাতেই ময়েশ্চরাইজ়ার ব্যবহার করুন, তাতে ত্বকের কোমলতা বজায় থাকবে। চুলেও শ্যাম্পুর পাশাপাশি কন্ডিশনার ব্যবহার করা বিধেয়। ভ্যাজাইনা পরিষ্কার রাখুন, শৌচকর্মের সময়ে ভুলেও মলদ্বারের দিক থেকে ভ্যাজাইনার দিকে টিস্যু আনবেন না। পিউবিক হেয়ার পরিষ্কার করার ইচ্ছে থাকলে ট্রিম করুন, যদি কোনও কারণে ভুলভাল রেজ়ার টেনে ফেলেন, তা হলে কিন্তু ইন গ্রোথ হবে এবং দারুণ ব্যথা পাবেন। মুখে যেন গন্ধ না হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। ভালো করে দাঁত মাজুন, ফ্লস ব্যবহার করুন, খুব বেশি কফি খাবেন না, চিউয়িং গাম ব্যবহার করুন প্রয়োজনে। আন্ডারআর্ম পরিচ্ছন্ন রাখুন, বেশি করে জল খান — তা হলে গায়ে গন্ধ হওয়ার কথা নয়। নখ ছোট রাখুন, নাক ও কান নিয়মিত পরিষ্কার করুন। পিরিয়ডের সময়ে দিনে অন্তত বার তিনেক প্যাড বদলাতেই হবে।

খাবার সংরক্ষণের স্বাস্থ্যকর উপায়:
ফ্রিজ একগাদা জিনিসপত্র ঠেসে ভরে ফেলবেন না। মাছ-মাংস, ফল, আনাজপাতি সব আলাদা আলাদা করে রাখুন। কাঁচা মাছ বা মাংসের জল যেন অন্য কোনও খাবারের উপর না পড়ে, সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখবেন। যে কোনও রান্না করা খাবার ঢাকা দিয়ে রাখুন অবশ্যই। রান্নার সময়েও মাছ-মাংস ও ফল-সবজি কাটার জন্য আলাদা আলাদা ছুরি বা বঁটি ব্যবহার করতে পারলে ভালো হয়। সমস্ত ফল ও সবজি ভালো করে ধুয়ে তবেই খাবেন। ফ্রিজের তাপমাত্রা যেন 5 ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডের নিচে না নামে, সেদিকে খেয়াল রাখুন।

অফিসের স্বাস্থ্যবিধি:
অফিসের ডেস্ক, ড্রয়ার, বাথরুমের দরজার হাতল বা ডোর নবগুলি হচ্ছে জীবাণুর আখড়া। সেগুলি ঠিকমতো পরিষ্কার হচ্ছে কিনা নজরে রাখুন। নিজের হাত পরিষ্কারের জন্য অ্যালকোহলযুক্ত ব্র্যান্ডেড হ্যান্ড স্যানিটাইজ়ার ব্যবহার করতে পারেন, কম দামি স্যানিটাইজ়ারের কড়া অ্যালকোহল কিন্তু ত্বকের আর্দ্রতা শুষে নিতে পারে। নিজের কাপ ও গ্লাস ব্যবহার করুন চা বা জলপানের জন্য। সবচেয়ে বড়ো কথা, প্যানট্রিতে বসে খাওয়াদাওয়ার নিয়ম থাকলে সেটাই মেনে চলুন, তাতে পরিচ্ছন্নতা রক্ষা করার কাজটা সহজ হয়ে আসে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য