ডমেস্টিক ভায়োলেন্স বা পারিবারিক সহিংসতার বিরুদ্ধে শনিবার ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের রাজপথে বিক্ষোভ করেছে কয়েক হাজার মানুষ। এতে অংশগ্রহণকারীরা পারিবারে নারীদের ওপর নির্যাতনের বিরুদ্ধে সচেতনতা বাড়ানো এবং অপরাধীদের কঠোর শাস্তির দাবিতে আওয়াজ তোলেন।

যথেষ্ঠ হয়েছে, পরিবারের নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ কর, দুনিয়াতে নারীদের বেঁচে থাকার প্রয়োজন রয়েছে ইত্যাদি লেখা ব্যানার, প্ল্যাকার্ড নিয়ে কর্মসূচিতে অংশ নেন বিক্ষোভকারীরা। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

নারীদের সুরক্ষায় কাজ করা বিভিন্ন এনজিও শনিবারের এ বিক্ষোভের আয়োজন করে। বিক্ষোভকারীরা এ বছর দেশটিতে নিহত ৭৪ নারীর স্মরণে ৭৪ সেকেন্ড নীরবতা পালন করেন। নারীদের অধিকার ও তাদের সুরক্ষা নিয়ে কাজ করা একটি ফেসবুক গ্রুপের হিসাবে, শুধু চলতি সপ্তাহেই ফ্রান্সে চার নারী নিহত হয়েছেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী, ২০১৭ সালে ফ্রান্সে ১৩০ জন নারী তাদের স্বামী বা সঙ্গীর হাতে খুন হয়েছেন। ২০১৬ সালে এ সংখ্যা ছিল ১৩২। শনিবার বিক্ষোভ সমাবেশে দেওয়া বক্তব্যে এমন পরিস্থিতিকে হত্যাযজ্ঞ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন সাবেক ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাদের স্ত্রী অভিনেত্রী জুলি গায়েত। তিনি বলেন, যা ঘটছে সে ব্যাপারে আমাদের সচেতনতা বাড়ানো উচিত। সমাজের বিবর্তন সত্ত্বেও আজও নারীদের জীবন দিয়ে মূল্য দিতে হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য