জিব্রাল্টার প্রণালিতে স্থানীয় সরকার ও ব্রিটিশ নৌবাহিনী কর্তৃক ইরানের একটি তেল ট্যাংকার আটকের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে রাশিয়া। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি প্রকাশ করে এ নিন্দা জানিয়ে বলেছে, ইরান ও সিরিয়ার পরিস্থিতিকে আরো জটিল করে তুলতে ইচ্ছাকৃতভাবে তেল ট্যাংকার আটক করা হয়েছে। এর ফলে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে বলেও রাশিয়া হুঁশিয়ার করে দিয়েছে।

সিরিয়া অভিমুখে যাওয়ার সময় গত বৃহস্পতিবার জিব্রাল্টার প্রণালীতে ব্রিটিশ মেরিন সেনারা ইরানি তেলবাহী জাহাজ গ্রেস-১কে আটক করে। স্পেন জানিয়েছে, মার্কিন সরকারের অনুরোধে ব্রিটেন ইরানি জাহাজ আটক করেছে। ইরান এ ঘটনাকে ‘জলদস্যুতা’ বলে এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছে।

এ ছাড়া, গ্রেস-১ আটকের ঘটনায় তেহরানে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। ইরান বলেছে, জাহাজ মুক্ত করার জন্য তেহরান তার সমস্ত রাজনৈতিক ও আইনগত শক্তি কাজে লাগাবে।

জিব্রাল্টারের স্থানীয় সরকার দেশ পরিচালনায় স্বাধীনতা ভোগ করলেও এর প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্রনীতি ব্রিটিশ সরকারের হাতে ন্যস্ত।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইরানি তেল ট্যাংকার আটকের পরিণতির দায়িত্ব সেইসব দেশকে নিতে হবে যারা তেহরান ও দামেস্কের ওপর অবৈধভাবে সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগ কর যাচ্ছে।

এতে আরো বলা হয়, রাশিয়ার দৃষ্টিতে এ চাপ প্রয়োগ ইরানের পরমাণু সমঝোতার ব্যাপারে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব এবং সিরিয়ার যুদ্ধবিরতি চুক্তির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরো বলেছে, আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী সিরিয়া সংকট নিরসনের যে নীতি ব্রিটেন ঘোষণা করেছিল তেল ট্যাংকার আটকের ঘটনায় তার ব্যত্যয় ঘটেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য