দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ৩০ জুন সান্তাল বিদ্রোহের ‘হুল’ দিবস উদযাপন উপলক্ষে ১ জুলাই সোমবার দিনাজপুরে সুইহারী নভারা জুনিয়র হাই স্কুল প্রাঙ্গনে চাম্পাগাড় সান্তালী ভাষা ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক উন্নয়ন সংগঠনের উদ্যোগে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকাল ১০টায় র‌্যালী শেষে সিধু, কানু’র অস্থায়ী সৃতিস্থম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সকল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খ্রীষ্টিয় ধর্মে দিনাজপুর ধর্মপ্রদেশের বিশপ ড. সেবাস্টিয়ান টুডু। অনুষ্ঠানের চাম্পাগাড় এর সভাপতি ফাদার লাজারুশ সরেন এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ফাদার ফ্রান্সিস মূর্মূ, যোগেন জুলিয়ান, সুশীলা টুডু,রবি মার্ডি প্রমুখ।

উল্লেখ্য যে, ১৮৫৫ সালের ৩০ জুন ভারতের দামিন-ই-কোহ্ এলাকা। সেখানে ১০ হাজার সাঁওতাল কৃষকের বিরাট জমায়েত। তাদের দাবি, ‘জমি চাই, মুক্তি চাই’। যা থেকে শুরু হয় বিদ্রোহ।

এ বিদ্রোহ হয়ে উঠেছিল সব সম্প্রদায়ের গরিব জনসাধারণের মুক্তিযুদ্ধ। ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংগ্রামের ইতিহাসে এক গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায় সাঁওতাল বিদ্রোহ। ব্রিটিশ সা¤্রজ্যবাদ ও তাদের এ দেশীয় দালাল সামন্ত জমিদার, সুদখোর ও তাদের লাঠিয়াল বাহিনী, দারোগা-পুলিশের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে সাঁওতাল নেতা সিধু, কানু, চাঁদ ও ভৈরব- এই চার ভাইয়ের নেতৃত্বে রুখে দাঁড়ান সাঁওতালেরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য