দিনাজপুর সংবাদাতাঃ রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে শতভাগ বেতনভাতাসহ পেনশন প্রথা এবং জনপ্রতিনিধিদের সম্মানী ভাতা প্রদানের দাবীতে দিনাজপুর পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে। বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির আহবানে ও দিনাজপুর পৌরসভা শাখার আয়োজনে দিনব্যাপী এই অবস্থান কর্মসূচী পালন করা হয়।

সোমবার (১ জুলাই) দিনাজপুর পৌরসভা ভবনের সামনে সকাল ৯টা হতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে তারা এই কর্মসূচী পালন করে। অবস্থান কর্মসূচী পালনের ফলে সকল নাগরিক সেবা বন্ধ থাকে। নাগরিক সেবা না পেয়ে পৌরবাসি বিপাকে পড়েন।

বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন দিনাজপুর পৌরসভা শাখার সভাপতি মো. মজিবর রহমান বাচ্চু’র সভাপতিত্বে অবস্থান কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন রংপুর বিভাগীয় কমিটির সাধারণ ও দিনাজপর পৌরসভার উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. হাবিবুর রহমান, দিনাজপুর পৌরসভা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও উপ-সহকারী প্রকৗশলী মো. লাইছুর রহমান চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শামসুল রানা, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. ময়েজ উদ্দিন, মো. নাজমুল হুদা, পৌরসভার কর্মকর্তা বিশিষ্ট সংগঠক মো. আমজাদ আলী প্রমূখ। অবস্থান কর্মসূচী থেকে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ন্যায্য দাবী মেনে নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান হয়।

দিনব্যাপী অবস্থান কর্মসূচীতে দিনাজপুর পৌরসভার হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মো. আবু জাহেদ, হিসাব রক্ষক মো. আবু রায়হান, পৌরসভার কর্মকর্তা মো. আব্দুর রাজ্জাক, মো. শহিদুল ইসলাম, মো. আনিসুজ্জামান চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য পরিদর্শক মো. লিয়াকত আলী, সুপারভাইজার মোমরেজ সুলতানা মালাসহ সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশগ্রহণ করেন।

একই দাবীতে ২ জুলাই মঙ্গলবার দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচী পালন করবে। তার পরও তাদের ন্যায্য দাবী পূরণ করা না হলে আগামী ১৪ জুলাই ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাব অথবা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মহাসমাবেশ পালন ও আমরন অনশন কর্মসূচী পালন করা হবে বলে সোমবারের অবস্থান কর্মসূচী থেকে ঘোষণা করা হয়।

উল্লেখ্য, দেশের বিভিন্ন পৌরসভা কর্মকর্তা-কর্মচারীগনের ২ মাস হতে ৫৮ মাস পর্যন্ত বেতন-ভাতা বকেয়া থাকায় তারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীগন চাকুরী শেষে অবসরে গেলে অবসরকালীন ভাতা না পেয়ে অসহায় হয়ে পড়েন।

পৌরসভার আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারনে পৌরসভার পক্ষ থেকে তাদের বেতন-ভাতা ও অবসরকালীন ভাতা পরিশোধ করা সম্ভব হচ্ছে না। সে কারণে সরকারী কোষাগার হতে শতভাগ বেতন-ভাতা ও পেনশন প্রাপ্তির জন্য পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন দীর্ঘদিন যাবৎ অহিংস কর্মসূচী পালন করে আসছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য