06. sharrukh khanভারতের রাজনৈতিক চিত্রনাট্য নিয়েও যথেষ্ট ভাবনা-চিন্তা করছেন বলিউডের নক্ষত্ররা৷ পৃথিবীর বৃহত্তম গণতন্ত্রের দেশের এই ভোট-উৎসব তাদের মনেও ছাপ ফেলেছে অনেকখানি৷ ভোটের পর দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে, সাধারণ মানুষের মনে তার প্রভাব পড়বে কতটা ইত্যাদি নিয়েও একেবারেই উদাসীন নন শাহরুখ খান থেকে সোনাক্ষি সিনহারা৷
বলিউডের বেতাজ বাদশা শাহরুখ খান ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তার ভক্তদের৷ কিং খানের মতে, আমরা সকলেই একটা সুখী দেশের নাগরিক হিসাবে বাঁচতে চাই৷ এ দেশের মানুষ যথেষ্ট বুদ্ধিমান৷ টিভি দেখে, কাগজ পড়ে তারা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন, কাদের ভোট দেওয়া উচিত বা উচিত নয়৷ ভোটের ফলাফলের দিকে আমিও তাকিয়ে আছি উন্মুখ হয়ে৷”
তবে শাহরুখ নিজে কোন দলের দিকে ঝুঁকে, সে ব্যাপারে কোনো ইঙ্গিত দেননি৷ পরিবর্তনের পক্ষপাতী কি না, জানাননি তা-ও৷
শাহরুখের তুলনায় অনেকটা খোলাখুলি নিজের মত জানিয়েছেন অনুপম খের৷ বি-টাউনের মুণ্ডিতমস্তক বিখ্যাত খলনায়ক বলেছেন, আমার মনে হয়, দেশের বর্তমান সরকার বেশ কিছু ক্ষেত্রে পুরোপুরি ব্যর্থ৷ দুর্নীতি আর কেলেঙ্কারিতেও তারা জড়িয়ে পড়েছে বারবার৷ আমি তাই পরিবর্তন চাই৷ কেন্দ্রে একটা পোক্ত এবং স্থায়ী সরকার থাকা দরকার৷ প্রত্যেককে ভোট দিতে অনুরোধ জানাচ্ছি আমি৷
এ সময়ের অন্যতম সফল নায়িকা দীপিকা পাড়–কোন৷ তার দাবি, “দেশের নেতারা বিভিন্ন জনসভায় যেসব প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন, সেগুলি যেন বাস্তবায়িত হয়৷” অনুপমের মতো পরিবর্তন চান দীপিকাও৷ তার মতে, “কেন্দ্রে পরিবর্তন দরকার৷ আমার মনে হয় দেশের বেশির ভাগ লোকই তাই চাইবেন৷ বেশ কিছু গুরুতর সমস্যা আছে দেশে৷ সেগুলি তুলে ধরা দরকার৷
দীপিকার অনুমান, এবারের ভোটে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে আসবে দেশের তরুণ প্রজন্ম৷ ভোট দিয়েই ‘ইফা’ ফিল্ম অ্যাওয়াডের্র অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ফ্লোরিডায় উড়ে যাবেন দীপিকা৷
বিজেপি সাংসদ শত্রূঘœ সিনহার কন্যা সোনাক্ষি সিনহাও ‘দুর্নীতিমুক্ত ভারত’ চাইছেন৷ পেট্রোলের ‘নিরন্তর মূল্যবৃদ্ধি’ নিয়েও তিনি চিন্তিত৷ সুন্দরী সোনাক্ষির কথায়, “পরিবর্তন অবশ্যম্ভাবী৷ আবার, বাস্তবধর্মী চিত্রপরিচালক প্রকাশ ঝা তাকিয়ে আছেন একজন ‘আধুনিক গান্ধী’-র দিকে৷ আমির খান, অর্জুন কাপুর, সানি দেওলরাও ভোট নিয়ে উত্তেজিত৷ তবে নিজেদের পছন্দ-অপছন্দ জানাতে উৎসাহী নন আদৌ৷- ওয়েবসাইট।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য