সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন রংপুরের অটোবাইক চালক সুমন ইসলাম। রংপুর জেলার তাজহাট মডার্ণ মোড় বার আউলিয়া নামক স্থানের জাফর আলীর ছেলে সুমন ইসলাম পরিবারের একমাত্র উপার্জমক্ষম ব্যক্তি হওয়ায় প্রতিদিন ভোরে বাড়ি থেকে অটোবাইক নিয়ে রংপুর শহরে ছুটে আসেন।

প্রতিদিনের ন্যায় অটোবাইক চালাতে গিয়ে গত ২৬ জুন বিকেল সোয়া ৫ টায় রংপুর সরকারি টির্চাস ট্রেনিং কলেজের সামনে থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান ও সহকারী প্রধানগণের শিক্ষায় আইসিটির ব্যবহার বিষয়ক প্রশিক্ষণে আসা রংপুর জেলার পীরগাছা উপজেলার কয়েকজন প্রতিষ্ঠান প্রধানকে নিয়ে মাহিগঞ্জ মোড়ে নামিয়ে দেয়ার সময় পীরগাছা উপজেলার শিবদেবপুর দাখিল মাদরাসার সহকারি প্রধান মোঃ আমিনুল ইসলাম ভূলক্রমে তার প্রতিষ্ঠানের ল্যাপটপটি অটোবাইকে ফেলে চলে যান।

অটোবাইক চালক সুমন ইসলাম ল্যাপটপের ব্যাগে থাকা রংপুর সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারি অধ্যাপক মোঃ আকতারুল আলমের ভিজিটিং কার্ডে থাকা মোবাইল নম্বরে কল দিয়ে ল্যাপটপ পাওয়ার তথ্য জানিয়ে দেন।

গতকাল ২৭ জুন বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় সুমন ইসলাম তার মা ও একমাত্র শিশু সন্তানকে সাথে নিয়ে রংপুর সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের অধ্যক্ষের কক্ষে এসে অধ্যক্ষ প্রফেসর নারায়ন কুমার কুন্ডু, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ আমজাদ হোসেন, সহকারি অধ্যাপক মোঃ আকতারুল আলমসহ প্রশিক্ষণ সমন্বয়কারি সহকারি অধ্যাপক (গাইডেন্স এ- কাউন্সেলিং) মোঃ রওশন আলম, সহকারি অধ্যাপক এ কে এম সাখাওয়াৎ হেসেন, সহকারি অধ্যাপক ডঃ এ এইচ এম ফিরোজ কবীর মন্ডল, প্রভাষক মোঃ আবদুস সালাম, সহযোগি অধ্যাপক মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের উপস্থিতিতে ওই শিক্ষকের হাতে ল্যাপটপটি ফেরত দেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য