রংপুরের পীরগাছায় দ্বিতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার ছাওলা ইউনিয়নের ছাওলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত ধর্ষক আলতাফ হোসেন সোনাকে (৪০) আটক করে শনিবার দুপুরে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এ ব্যাপারে পীরগাছা থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

মামলার বিবরণ, এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ছাওলা ইউনিয়নের ছাওলা গ্রামের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে খেলছিল।

এ সময় পাশের এলাকার নুরুজ্জামান মিয়ার বখাটে ছেলে এক সন্তানের পিতা আলতাফ হোসেন সোনা মেয়েটিকে গাব ফল দিয়ে ফুসলিয়ে ঘরে নিয়ে গিয়ে বিবস্ত্র করে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

এ সময় মেয়েটি চিৎকার করে উঠলে তার মা ও আশেপাশের লোকজন মেয়েটিকে বিবস্ত্র অবস্থায় উদ্ধার করে আলতাফ হোসেন সোনাকে হাতেনাতে আটক করে।

পরে পীরগাছা থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ওই দিন রাত ১০ টার দিকে ধর্ষককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় শনিবার সকালে পীরগাছা থানায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

পীরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম বলেন, ‘শনিবার আটককৃত ধর্ষককে রংপুর জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ধর্ষিতা মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য