নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় পিংকি আক্তার (১৮) নামের এক গৃহবধু গলায় ওড়না পেচানো ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে নিজ শোয়র ঘর হতে গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় ডোমার থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। পিংকি উপজেলার ডোমার সদর ইউনিয়নের ছায়া পাড়া এলাকার সাজেদুল ইসলামের স্ত্রী।

পিংকির শ^শুরবাড়ির লোকজন জানায়, সে সকালে ঘুম থেকে উঠে নাস্তা করার পর তাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলনা। তার শোয়ার ঘরের দরজা ভিতর দিয়ে বন্ধ থাকায় তাকে ডাকাডাকি করে কোন সাড়া না পাওয়ায় জানালার ফুঁটা দিয়ে দেখতে পাওয়া য়ায় ঘরে তার ঝুলন্ত লাশ। এ সময় পরিবারের লোকদের চিৎকারে আশপাশে^র এলাকাবাসী ছুটে আসে। এলাকাবাসী পুলিশে খবর দিলে পুলিশ দ্রুত পৌছে ঘরের দরজা ভেঙে লাশ উদ্ধার করে।

দুপুরে ডোমার থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো: মোস্তাফিজার রহমান পিংকির লাশ উদ্ধার করে জানান, লাশের সাথে একটি চিঠি পাওয়া গেছে। চিঠিতে লেখা ছিল, তোমার জেদ নিয়ে তুমি থাকো। আমি চলে গেলাম। ইতি পিংকি। তিনি আরো জানান, লাশের ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠানো হবে। এ বিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত আট মাস আগে ডোমার পৌর এলাকার আট নং ওয়ার্ড বসতপাড়া এলাকার আউয়াল হোসেনের মেয়ে পিংকি আক্তারের সাথে সাজেদুল ইসলামের বিয়ে হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য