আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধাঃ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ৫ম ধাপে মঙ্গলবার গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল সন্তোষজনক।

এদিকে বিশৃংখলা সৃষ্টির অভিযোগে বামনডাঙ্গার মনমথ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র থেকে স্বপন রাম রায় নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া নির্বাচন আচরণ বিধি লংঘনের অপরাধে ভাইস চেয়ারম্যান পার্থী সুরজিত সরকারকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট।

উল্লে¬খ্য, অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে একটি ‘আইন শৃংখলা রক্ষাকারী সেল এবং মনিটরিং টিম গঠন করা হয়। নির্বাচন অনুষ্ঠানে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী সংস্থা সমূহের কর্মকান্ডের সমন্বয়সাধন ও সুসংহতকরণের দায়িত্ব পালন করেন বিশেষ এই টিম।

এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

প্রার্থীরা হচ্ছেন-
চেয়ারম্যান পদে আশরাফুল আলম সরকার লেবু (নৌকা), আহসান হাবীব খোকন (লাঙল), গোলাম আহসান হাবীব মাসুদ (মোটর সাইকেল), খয়বর হোসেন সরকার মওলা (ঘোড়া)। ভাইস চেয়ারম্যান পদে সফিউল আলম (চশমা), শওকত আলী (টিয়াপাখী), আব্দুর রাজ্জাক তরফদার (টিউবয়েল), আল শাহাদত জামান জিকো (তালা), আসাদুজ্জামান মনি (লাঙল), সুরুজিত কুমার সরকার (বৈদুৎতিক বাল্ব)। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে হোসনে আরা বেগম (লাঙল), আল্পনা রানী গোস্বামী (ফুটবল) ও উম্মে সালমা (হাঁস), হাফিজা বেগম কাকলী (কলস)।

এ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৫টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৩৯ হাজার ২১৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৬৫ হাজার ৩৪১ ও মহিলা ১ লাখ ৭৩ হাজার ৮৭৭ জন। ১১১টি ভোট কেন্দ্রে এসব ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য