সৈয়দপুরে সোনালী সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেডের অফিস থেকে খেলনা অস্ত্র ঠেকিয়ে প্রায় ১৭ লাখ টাকা ডাকাতির ঘটনায় আলমগীর হোসেন নামে ওই সমিতির ফিল্ড অফিসারকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ।

তাঁর বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলার ভুল্লী এলাকায়। সূত্র মতে, গত ২৮ এপ্রিল শহরের শহীদ জহুরুল হক সড়কে জনৈক চান মিয়ার ভবনের ৩য় তলায় সমিতির অফিসে বিকেলে ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

ওই ঘটনায় সমিতির ম্যানেজার জাকারিয়া সরকার নিজে বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৫ থেকে ৬ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১৭ লাখ ৬৭ হাজার ৯ শত ৫৯ টাকা ডাকাতির কথা উল্লেখ করা হয়।

এ মামলার সূত্র ধরে পুলিশ গত ১৮ মে সৈয়দপুর শহর থেকে ওই সমিতির ফিল্ড কর্মকর্তা আলমগীর হোসেনকে গ্রেফতার করে। বর্তমানে সে জেল হাজাতে রয়েছে।

সৈয়দপুর থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (অপারেশন) ও ডাকাতি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান, আটক আলমগীর হোসেন ডাকাতির ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী।

সে নিজে ডাকাতির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার সৈয়দপুর সার্কেল অশোক কুমার পাল জানান, আটককৃত ওই সমিতির ফিল্ড অফিসারের তথ্যমতে গত ১২ জুন ওই ডাকাতি মামলার মুল আসামি মো. মাসুদ রানাকে বগুড়া থেকে গ্রেফতার করা হয়।

তার বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলার কুমারপুর হুল্লিবড় গ্রামে। গতকাল সৈয়দপুর থানায় প্রেস কনফারেন্সে সাংবাদিকদের সামনে ওই ডাকাত বলেন সমিতির কর্মকর্তা আলমগীরের যোগশাজসে খেলনা পিস্তুল নিয়ে আমরা ৪ জন পেশাদার ডাকাত তার সমিতিতে গিয়ে ডাকাতি করি।

ওই সময় সমিতির ৮ লাখ ৪৪ হাজার টাকা নিয়ে আমরা সটকে পড়ি। কিন্তু সমিতি থেকে দাবি করা হয় ১৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকা ডাকাতরা নিয়ে গেছে। আটককৃত ডাকাতের কাছ থেকে ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

সৈয়দপুর থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ মো. আবুল হাসনাত জানান, এ মামলায় দু’জন আসামি গ্রেফতার হলো। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে আমরা জোর চেষ্টা চালাচ্ছি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য