দিনাজপুর সংবাদাতাঃ খানসামায় তিনটি স্থানে অগ্নিকা-ে ২৬ বাড়িসহ ৫টি ছাগল, ধান-চালসহ প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ ঘটনায় উপজেলা প্রশাসন তাৎক্ষনিক নগদ টাকাসহ খাদ্যসামগ্রী প্রদান করেছেন।

গত রবিবার দিবাগত রাতে খানসামা উপজেলার আলোকঝাড়ি ইউপির ফরিদাবাদ, ভাবকী ইউপির মারগাঁও এবং খামারপাড়া ইউপির দক্ষিন বালাপাড়া গ্রামে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, খানসামা উপজেলায় রবিবার দিবাগত রাত দেড় টায় আলোকঝাড়ি ইউপির মরিয়ম বাজারের ফরিদাবাদে ২০টি, রাত ৩টার দিকে ভাবকি ইউপির মারগাঁও-এ ৫টি ও খামারপাড়া ইউপির দঃ বালাপাড়া গ্রামের-১টি বাড়িসহ ৫টি ছাগল, ধান-চালসহ প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

আলোকঝাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আ স ম আতাউর রহমান জানান, প্রত্যেক পরিবারকে শুকনো খাবারসহ নগদ আর্থিক টাকা প্রদান করা হয়েছে।

ভাবকি ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম এর সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মারগাঁও গ্রামের অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ৫ঘরের তিনটি সম্পূর্নভাবে পুড়ে ছাই হয়ে যায় এবং বাকী ২টি আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। খানসামা ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল- ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্থদের তাৎক্ষনিক আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।

খামারপাড়া ইউপি সাজেদুল হক জানান, দঃ বালাপাড়া গ্রামের-১টি বাড়িসহ ৫টি ছাগল, ধান-চালসহ প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ মাহবুব-উল- ইসলাম জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তাৎক্ষনিকভাবে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থ ২৪টি পরিবারের প্রত্যেককে নগদ ২ হাজার টাকা, চাল-ডালসহ প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী প্রদান করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থদের একজন এক বিধবাকে একটি ঘর করে দেওয়া হবে। এ ছাড়াও জেলা প্রশাসনের কাছে সাহায্য সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। সেটি পেলে তাদের প্রদান করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য