দিনাজপুর সংবাদাতাঃ পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে টানা সাত দিন বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পণ্য আমদানি-রফতানিসহ বন্দরের ভেতরের সব কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। তবে হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে দুই দেশের মধ্যে পাসপোর্টে যাত্রী পারাপার কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকবে।
হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুনুর রশিদ হারুন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুনুর রশিদ হারুন জানান, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আগামী ১ জুন শনিবার থেকে ৮ জুন পর্যন্ত টানা সাত দিন বন্দর দিয়ে দুই দেশের মধ্যে পণ্য আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বন্দরের আমদানি-রফতানিকারক ও সিএন্ডএফ এজেন্ট ব্যবসায়ীরা। সেই সিদ্ধান্ত মোতাবেক বিষয়টি ভারতের হিলি এক্সপোটার্স অ্যান্ড কাস্টমস ক্লিয়ারিং এজেন্ট, হিলি কাস্টমস, বন্দরসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে। আগামী ৯ জুন রবিবার থেকে বন্দর দিয়ে আবার আমদানি-রফতানি বাণিজ্য শুরু হবে।

হিলি স্থলবন্দরের সহকারী ব্যবস্থাপক অশিত কুমার স্যানাল সাংবাদিকদের জানান, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ব্যবসায়ীরা বন্দর দিয়ে সাতদিন আমদানি-রফতানি বন্ধের ঘোষণা দিলেও সরকারি ছুটি ছাড়া অন্যান্য দিন বন্দরের কার্যক্রম চালু থাকবে। বিশেষ করে ২ ও ৩ জুন বন্দরের ভেতরের সব কার্যক্রম চলবে। এসময় আমদানিকারকরা তাদের আমদানিকৃত পণ্য বন্দর থেকে খালাস করে নিতে পারবেন।

হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ওসি ফিরোজ কবির সাংবাদিকদের জানান, পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ থাকলেও হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে দুই দেশের মাঝে পাসপোর্টে যাত্রী পারাপার কার্যক্রম অন্যান্য দিনের মতোই স্বাভাবিক থাকবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য