৪ লক্ষ ১৮ হাজার টাকা ব্যয়ে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা রেলওয়ে প্লাটফর্মে পানি নিস্কাশনের জন্য নির্মিত আরসিসি ড্রেনটি নির্মানের মাত্র ৫ মাসের মধ্যে সামান্য বৃষ্টির পানিতে ভেঙ্গে গেছে। গভর্ন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্ট ৩ এলজিএসপি এর আওতায় এ কাজটি বাস্তবায়ন করেন সিঙ্গিমারী ইউনিয়ন পরিষদ। এলাকাবাসীর অভিযোগ নিম্নমানের কাজের ফলে নির্মাণের ৫ মাসের মধ্যে ড্রেনটি ভেঙ্গে গেছে।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, সামান্য বৃষ্টি হলেই হাতীবান্ধা রেলওয়ে ষ্টেশন এলাকায় জলবন্ধতার সৃষ্টি হয়। এ থেকে পরিত্রানের জন্য ওই এলাকায় ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে লোকাল গভর্ন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্ট ৩ এলজিএসপি এর আওতায় আরসিসি ড্রেনটি নিমার্ণের উদ্যোগ নেয়া হয়। ৪ লক্ষ ১৮ হাজার টাকা ব্যয়ে ড্রেনটি নির্মাণ কাজ বাস্তবায়নের দায়িত্ব পায় সিঙ্গিমারী ইউনিয়ন পরিষদ।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় ড্রেনটি নির্মান করা হয়। ড্রেন নির্মাণে নিম্নমানের ইট, সিমেন্ট ও বালু ব্যবহার করা হয়। যার ফলে ড্রেনটি নির্মাণের ৫ মাসের মধ্যে গত কয়েক দিনের সামান্য বৃষ্টিতে ভেঙ্গে গেছে। এতে রেলওয়ে ষ্টেশন এলাকায় আবারও জলবন্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। প্লাটফর্মে দাঁড়িয়ে থাকার কোন উপায় নেই।

সিঙ্গিমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেন দুলু বলেন, ওই ড্রেনটি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে এলজিএসপি’র আওতায় বাস্তবায়ন করা হয়েছে। বন্যার কারণে ড্রেনটি ভেঙ্গে গেছে। প্রজেক্টের সিকিউরিটি টাকা জমা আছে। ওই টাকা দিয়ে ড্রেনটি আবারও পুনরায় মেরামত করা হবে বলে জানান।

হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামিউল আমিন বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। আপনাদের মাধ্যমেই জানতে পারলাম। বিষয়টি খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য