দিনাজপুর সংবাদাতাঃ হাইকোর্টের নির্দেশনা মোতাবেক ফুড এক্সপার্ট এর উপস্থিতিতে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিসহ খাদ্য দ্রব্য পরীক্ষা নিরীক্ষা করে ভেজাল প্রমাণ সাপেক্ষে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা না করা ও জরিমানা করার প্রতিবাদে দিনাজপুরে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন করেছে দিনাজপুর জেলা বেকারী মালিক ও দোকান মালিক সমিতি।

সোমবার (২৭ মে) দুপুর ১টার দিকে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে প্রায় পাঁচ’শ বেকারী মালিক ও বিভিন্ন দোকানের মালিকরা এই মানববন্ধন পালন করেন। মানববন্ধনের পূর্বে দিনাজপুরে বেকারী মালিক সমিতি ও দোকান মালিক সমিতির নির্দেশনা অনুযায়ী শহরের সকল দোকানপাট দুই ঘন্টা বন্ধ থাকার নির্দেশনা দেন। এ সময় সকল দোকানপাট দুই ঘন্টা বন্ধ রেখে প্রতিবাদ করেন দোকান ও বেকারী মালিকরা।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন, উত্তরবঙ্গ বেকারী মালিক সমিতির সভাপতি মাকসুদুল আলম পাটোয়ারী, দিনাজপুর দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম শেখ, দিনাজপুর রেস্তোরা মালিক সমিতির সভাপতি শ্যামল কুমার ঘোষসহ প্রমুখ।

ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে বেকারী মালিক সমিতির পক্ষে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের হলরুমে সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলন লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান বেকারী মালিক সমিতির সা:সম্পাদক শামীম শেখ। এসময় বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন উত্তরবঙ্গ বেকারী মালিক সমিতির সভাপতি মো. মাকসুদুল আলম পাটোয়ারী।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমরা দেশের প্রচলিত আইন এবং ভ্রাম্যমান আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। ভেজাল প্রতিরোধে আদালত পরিচালিত হোক এটা আমাদেরও কাম্য। কিন্তু দুঃখজনক বিষয়, দিনাজপুর জেলা মালিক সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য রোলেক্স বেকারীর কারখানায় মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশনা অমান্য করে ফুড এক্সপার্ট এর অনুউপস্থিতিতে গত ২৪ তারিখ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৬ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করে। এ সময়ে কারখানার ম্যানেজারকে মারধোর করার অভিযোগও করেন তিনি।’

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, রোলেক্স বেকারীর ৬ লাখ টাকা ফেরতসহ ব্যবসায়ীদের সুষ্ঠু নিয়মে আইনানুযায়ী ব্যবসা পরিচালনা করতে দিতে হবে। যদি ভ্রাম্যমান আদালত বেকারী মালিকদের এমন অহেতুক জরিমানা করেই চলেন তাহলে আমরা ঈদের পরে সকল দোকান রেস্তোরা বন্ধসহ বৃহত্তর আন্দোলনে রাজপথে নামবো।

এ সময় দোকান ও বেকারী মালিক সমিতি ৭ দফা দাবিও জানান। দাবি সমূহ- হাইকোর্টের নির্দেশনা মোতাবেক ফুড এক্সপার্ট এর উপস্থিতিতে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিসহ খাদ্য দ্রব্য পরীক্ষা নিরীক্ষা করে ভেজাল প্রমাণ সাপেক্ষে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা না করা ও জরিমানা করা, রোলেক্স বেকারীর ব্যবস্থাপককে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের সুষ্ঠু বিচার করা, বাণিজ্য মন্ত্রনালয় কর্তৃক ইস্যুকৃত গেজেটের শতভাগ বাস্তবায়ন করাসহ বিভিন্ন দাবি জানানো হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য