রংপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে জরিমানা আদায়ের প্রতিবাদে ডাকা অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নিয়েছে হোটেল, রেস্টুরেন্ট ও বেকারি মালিকরা। রোববার (২৬ মে) বিকেল সাড়ে চারটায় রংপুর জেলা হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি আবদুল মজিদ খোকন ধর্মঘট প্রত্যাহারের বিষয়টি কে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এদিকে ভোর ছয়টা থেকে শুরু হওয়া ধর্মঘটে রংপুর মহানগরীর কোথাও হোটেল, রেস্তোরা ও বেকারি খোলা রাখতে দেখা যায়নি। এতে করে বিকেলের পর থেকে ইফতার সামগ্রী কিনতে আসা ক্রেতাদের শুণ্যহাতে ফিরে যেতে হয়েছে। রমজান মাসে ব্যবসায়ীদের এমধর্মঘটেমিশ্রপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে জনমনে। তবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, অভিযানের নামে অস্বাভাবিকহারে প্রশাসনের জরিমানা আদায় এবং ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের পথে বসিয়ে দেয়ার প্রচেষ্টার প্রতিবাদেই এই ধর্মঘট ডাকা হয়েছিলো।

এদিকে রোববার দুপুরে রংপুর জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে সাথে হোটেল রেস্তোরা ও বেকারি মালিকদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীব বলেন, খাবাররে মান উন্নত করার লক্ষ্যে সকল হোটেল রেস্তরা ও বেকারী দোকান মালিকদের আরও আন্তরিকভাবে এগিয়ে আসতে হবে। সেই সাথে ভ্রাম্যমান অভিযান টিমদের সহনশীলভাবে অভিযান পরিচালানা নির্দেশ দেন।

জেলা হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি আবদুল মজিদ খোকন বলেন, আমরা জেলা প্রশাসন ও র‌্যাব-১৩’র অধিনায়কের সাথে সভা করেছি। তাদের কাছ থেকে আমরা সন্তোষমূলক আশ্বাস পেয়েই ধর্মঘট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আগামীকাল সোমাবার (২৭ মে) থেকে পূর্বের ন্যায় সকল হোটেল রেস্তরা, বেকারি ও ইফতারের দোকানগুলো খোলা রাখা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য