আনোয়ার হোসেন আকাশ, রাণীশংকৈল থেকেঃ রাণীশংকৈলে আদালতের আদেশ অমান্য করে বিবাদী পক্ষ আব্দুর রহমান গং ২৪ মে বিকালে এম পি-২৬২/১৯ মামলায় অভিযুক্ত জমির ধান কেটে নিয়ে পালিয়েছে ।

মামলার তথ্য মতে, পৌর শহরের ভান্ডারা গ্রামের আব্দুল বাসেদের পুত্র শাহাজাহান আলী ভান্ডারা মৌজার জেএল নং ৮৯, খতিয়ান নং সিএস ৩৬৬, এসএ ৩০৭, দাগ নং ১১০/৯৯/২৩৫/১১১/১০৮/৫৯/৪৫/১০০/৩২/২৩২ জমির পরিমান ২.৩৫ শতক নালিশী জমি এবং একই মৌজার জেএলনং ৮৯, খতিয়ান নং এসএ ১৮১ দাগ নং ২৫০ এর দক্ষিন পূর্ব অংশে’র উপর বাদী হয়ে বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, ঠাকুরগাও আদালতে একটি মামলা আনয়ন করেন। মামলাটি এম পি-২৬২/১৯ ধারা ফৌঃ কাঃ বিঃ আইনের ১৪৪, স্মারক নং ২৬০ তারিখ ২২/৫/১৯।

উক্ত সম্পত্তির দখল ও মালিকানা নিয়ে বিরোধের বিষয়ে বিজ্ঞ আদালতে দায়েরকৃত সুত্রোক্ত মামলায় বিজ্ঞা আদালত তফশীল বর্ণিত সম্পত্তিতে শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার জন্য বাদী বিবাদী পক্ষকে নির্দেশ দেন। আদালতের পরবর্তী নির্দেশ বা মামলার চুড়ান্ত নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সম্পত্তিকে কেন্দ্র করিয়া আইন শৃংখলা পরিস্থিতি অবনতি জনিত কর্মকান্ড হতে বিরত থাকার নির্দেশ প্রদান করা হয়। এবং প্রতিপক্ষ ভান্ডারা গ্রামের আব্দুর রহমান (৩২) পিতা আব্দুল বাসেদ, মৃত হাফিজ উদ্দীন’র পুত্র আব্দুল বাসেদ (৬২) গং গণকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ প্রদান এবং আগামী ৩০ জুন’১৯ তারিখ উক্ত জমির সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র উপস্থাপন পূর্বক নিজে বা বিজ্ঞা কৌশলীর মাধ্যমে বক্তব্য পেশ করার জন্য বলা হয়েছে।

থানা সুত্রমতে, থানা পুলিশের এসআই (নিঃ) মোঃ আহসান হাবিব গত ২৪ মে স্বশরীরে আদালতের আদেশ নামা বিবাদী পক্ষের নিকট পৌঁছান। তবুও বিবাদী পক্ষ বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, ঠাকুরগাও আদালত এবং থানা পুলিশকে অমান্য করে জমির ধান কেটে নিয়ে পালিয়ে যায়।

এব্যাপারে রাণীশংকৈল থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল মান্নান বলেন, বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, ঠাকুরগাও আদালতের এম পি-২৬২/১৯’র ১৪৪ জারি করেছি। আইন শৃংখলা পরিস্থিতি অবনতি জনিত কর্মকান্ড থেকে উভয় পক্ষকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য