কাহারোল (দিনাজপুর) সংবাদাতাঃ কাহারোলে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তার সংকট পিছু ছাড়ছে না, এর ফলেও জনসাধারণ ও রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে চলছে ৩ জন ডাক্তার।

দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলাটি ছয়টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। আর এই উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের প্রায় দেড় লক্ষ জনগোষ্ঠীর চিকিৎসা পাওয়ার একমাত্র প্রতিষ্ঠান কাহারোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আছে কিন্ত সেবা দেওয়ার মত সেই পরিমাণে তেমন ডাক্তার নেই। ডাক্তার অভাবের পাশাপাশি এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘদিন ধরে এক্স-রে মেশিনের ফিল্ম সংকট।

৩১ শয্যা বিশিষ্ট এই সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পনেরটি পদে ডাক্তার থাকার কথা থাকলেও কাগজে-কলমে আছে মাত্র পাঁচ জন।

পাঁচ জনের মধ্যে একজন আছেন মাতৃত্বকালিন ছুটিতে, আরেকজন ডেপুটিশনে চলে গেছে নীলফামারি মেডিক্যাল কলেজে, আর বাকি তিন জন ডাক্তার দিয়ে চলছে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম।

অত্র স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ শফিউল আজম প্রশাসনিক কার্যক্রমের পাশাপাশি নিয়মিত রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে দেখা যাচ্ছে।

এর ফলে ঐ কর্মকর্তার প্রশাসনিক কাজ করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন ডাক্তার না থাকার কারণে।

সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আউট-ডোরে প্রতিদিন উপজেলা বিভিন্ন এলাকা থেকে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য আসা রোগীরা লাইনে দাঁড়িয়ে ডাক্তার না থাকায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত দুই জন ডাক্তারের নিকট থেকে চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কাহারোল, দিনাজপুর এর হাসপাতাল ও মাঠ পর্যায়ে রোগীর চিকিৎসা সেবা প্রদানের বিবরণ থেকে জানা যায়, গত এপ্রিল মাসে ২৪ দিনে এই ৩ জন ডাক্তারের অক্লান্ত প্রচেষ্টায় বহিঃবিভাগে ৮ হাজার ৩ শত ৪২ জন, জরুরী বিভাগে ৭ শত ৭৭ জন রোগীর সেবা প্রদান করেন এবং ১৫ জন মহিলা রোগীর সাধারণ ভাবে ডেলিভারী প্রদান করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য