মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে সোমবার ডায়রিয়া ও জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ১৫২ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে। এছাড়াও আউটডোরে চিকিৎসা নিচ্ছেন ৬ থেকে ৭ শতাধিক রোগী।

বিপুল সংখ্যক রোগী সামাল দিতে হিমসিম খেতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালটির ভারপ্রাপ্ত আরএমও ডা: শামিমা আক্তার সোহাগী।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, বিরুপ আবহাওয়ায় তাপমাত্রা বেশি থাকার কারনে ডায়রিয়া ও জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন রোগীরা। রোববার ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয় ৩৫ জনকে। এরমধ্যে বেশির ভাগ শিশু ও বৃদ্ধ মহিলা।

হাসপাতালটির ধারন ক্ষমতা ১০০ শয্যার হলেও বর্তমানে ভর্তি রোগী রয়েছেন ১৫২ জন। আউটডোরে রোববার চিকিৎসা দেয়া হয়েছে ৬৭০ জনকে এবং সোমবার প্রায় ৬৫০ জন রোগীকে।

ভারপ্রাপ্ত আরএমও ডা: শামিমা আক্তার সোহাগী জানান, তাপমাত্রা বেশি থাকার কারনেই মূলত ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন রোগীরা। এছাড়াও ইরি মৌসুমে রোদে কাজ করেও অনেকে ডায়রিয়া ও জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন।

আমাদের জনবল কম থাকায় চিকিৎসা সেবা দিতে হিমসিম খেতে হচ্ছে। তবে পর্যাপ্ত ঔষধ সরবরাহ থাকায় আমরা আন্তরিক ভাবে রোগীদের সেবা দিয়ে আসছি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য