নবাবগঞ্জ(দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার নলেয়া গ্রামের আবু সাইদের মেয়ে সুমাইয়া খাতুন (১৪) রবিবার সকাল ৮.৩০ ঘটিকায় নিজ ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

সুমাইয়ার নানি হাফেজা বলেন, আমি সকালে সুমাইয়াকে রেখে চুল ছেড়া গার্মেন্টস গিয়েছিলাম, প্রতিদিন সে প্রাইভেট পড়তে যেত। আজকেও তার বান্ধবীরা প্রাইভেট পড়ার জন্য তাকে ডাকতে আসে।

এসে দেখে গালায় ওড়না পেচিয়ে ঘরের বর্গার সাথে ঝুলিয়ে আছে। এমতাবস্থায় তার বান্ধবীরা চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা ও আমি এসে মাটিতে নামিয়ে দেখি সে মারা গেছে।

এ বিষয়ে মাহমুদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাদশা জানান, সুমাইয়া দরিদ্রতার মাঝেও নানির বাড়ি থেকে পড়াশুনা করতো।

সে নলিহা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী। তার মা ঢাকায় গার্মেন্টস এ চাকরি করেন। সুমাইয়া খুব ভালো ছাত্রী কি কারনে সে এমন ঘটনা ঘটালো কেউই বলতে পারছে না।

এ বিষয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত এস,আই সুপ্রভাত বলেন, এটা হত্যা না আত্মহত্যা তা পোস্ট মডেম করলে প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য