রংপুরের তারাগঞ্জে বিথীকা রাণী রায় (৩০) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে মা-ছেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার আদালতের মাধ্যমে তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। তারা হলেন, বিথীকার স্বামী পরিমল চন্দ্র রায় (৩২) ও পরিমলের মা শ্রীমতি কল্পনা রাণী (৫০)।

তারাগঞ্জ থানার এসআই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কার্তিক চন্দ্র রায় জানান, শনিবার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার নলিতাবাড়ি গ্রামে তাদের এক নিকট আত্মীয়ের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পরিমল চন্দ্র ও তার মা শ্রীমতি কল্পনা রাণীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তারাগঞ্জ থানা ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, পরিমল চন্দ্র রায়ের সঙ্গে আট মাস আগে বিথীকা রাণী রায়ের বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতে ৫০ হাজার টাকা যৌতুকের দাবিতে তাকে প্রায় নির্যাতন করা হতো।

পরে চলতি বছরের ৩০ মার্চ বিথীকাকে পিটিয়ে হত্যা করে, ঘরের তীরের সাথে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন থাকায় বিথীকার ভাই মনিন্দ্র চন্দ্র রায় বাদী হয়ে পরিমলসহ পাঁচজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য