নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় ঘুর্ণিঝড় ও শীলাবৃষ্টিতে ঘড়-বাড়ি, গাছপালা, পাকাধানসহ আম ও লিচুর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। শুক্রবার ভোর পাঁচ টার দিকে প্রথমে শীলা বৃষ্টি তারপর প্রচন্ড বেগে উপজেলা উপর দিয়ে ঘুর্ণিঝড় বয়ে যায়।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বিচ্ছিন্ন ভাবে ক্ষতি হলেও বেশী ক্ষতি হয়েছে ডোমার পৌরসভা এলাকায়। এ এলাকায় বেশ কিছু ঘর ভেঙে পড়েছে ও টিনের চালা উড়ে গেছে। অসংখ্য গাছ পালা উপড়ে পড়েছে। বেশী ক্ষতি হয়েছে পাকা ধান, কাঁচা মরিচ, আম, কাঠাল, লিচুর। কয়েকটি বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে যাওয়ায় ও কয়েকটি গাছ তারের উপর পড়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের নির্বাহী প্রোকৌশলী ইউসুফ আলী জানান, বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করতে কাজ করা হচ্ছে। আশাকরি সন্ধ্যার মধ্যে সংযোগ চালু করা সম্ভব হবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবীদ জাফর ইকবাল জানান, কৃষকরা ক্ষেতের বেশী ধান ইতেমধ্যে কেটে ফেলেছে। ক্ষেতে থাকা ধান, ও বিভিন্ন ফল ঝড়ে গেছে। আমরা ক্ষতির তালিকা করছি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে ফাতিমা জানান, ঘুর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর তালিকা করে ঢেউটিন ও নগদ অর্থ সহায়তা করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য