ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে সশস্ত্র বিদ্রোহী ও সেনা সদস্যের গোলাগুলিতে এক বেসামরিকসহ অন্তত পাঁচজন নিহত হয়েছেন। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি) পুলওয়ামাতে আরডিএক্স বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি নিয়ে ‘সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স’র গাড়ি বহরে আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়। এতে বহরের ৭০টি গাড়ির মধ্যে একটি বাস সম্পূর্ণভাবে ভস্মীভূত হয়ে যায়। প্রাণ হারায় বাহিনীর অন্তত ৪৪ সদস্য। হামলার পর জঙ্গিগোষ্ঠী জয়েশ-ই-মোহাম্মদ ঘটনার দায় স্বীকার করে। ঘটনার পর কাশ্মির পরিস্থিতি বেশ উত্তপ্ত হয়ে পড়ে। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তা সেনাদের অভিযান চালানোর পথ উন্মুক্ত করে দেন। এরপর থেকেই কাশ্মিরের নিকটবর্তী গ্রামগুলো অভিযান চালাতে শুরু করে নিরাপত্তা বাহিনী। সেখানেই বেসামরিকদের প্রতিরোধে প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে।

সেসময় হামলার জবাব হিসেবে পাকিস্তানে হামলা চালানো হয়েছে দাবি করেন মোদি। বিশ্লেষকদের মতে, লোকসভা নির্বাচনের আগে এমন পদক্ষেপে মোদির জনপ্রিয়তা বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার হামলার ব্যাপারে ‍পুলিশ জানায়, কাশ্মিরের দালিপোরা গ্রামে ভোরে শুরু হওয়া অভিযানে পাকিস্তানি এক কমান্ডার সহ জইশের তিন সদস্য নিহত হয়েছেন। এছাড়া প্রাণ হারিয়েছে এক ভারতীয় সেনাও

গ্রামবাসীরা জানান, রাইস আহমাদ দার নামে একজন বেসামরিককেও হত্যা করেছে সেনাবাহিনী। তাদের অভিযোগ, প্রায়ই গ্রামবাসীদের মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করে সেনা সদস্যরা।

পুলিশের এক মুখপাত্র দাবি করেন, পুলিশ ও জঙ্গির ক্রসফায়ারে দার প্রাণ হারিছেন।

সংঘর্ষের পর পুলিশের ওপর পাথর নিক্ষেপ করেছে গ্রামবাসীরা। জবাবে পুলিশও টিয়ার গ্যাস চালিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য