পাসাউ শহরের কাছে বাভারিয়ান হোটেলের একটি কক্ষে মধ্যযুগীয় অস্ত্র ক্রসবো তীরের আঘাতে তিনজনের মৃত্যুর ঘটনার তদন্তে নেমে সাড়ে ছয়শ কিলোমিটার দূরের একটি ফ্ল্যাট থেকে আরো দুই নারীর লাশ উদ্ধার করেছে জার্মান পুলিশ।

উইটিঙ্গেনের ওই ফ্ল্যাটের নিবন্ধিত বাসিন্দা- ৩০ বছর বয়সী এক নারীর মৃতদেহ বাভারিয়ার হোটেলেই মিলেছিল। শরীরের বিভিন্ন স্থানে তীরবিদ্ধ অন্য দুই নারী-পুরুষের মৃতদেহ হোটেল কক্ষের বিছানাতেই পড়েছিল। এ যুগল একে অপরের হাত ধরেছিলেন। এ তিনজন ছাড়া কক্ষটিতে অন্য কারো উপস্থিতি কিংবা কোনো ধরনের মারামারি-ধস্তাধস্তির প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নিহত ৫ জনের সবাই জার্মানির নাগরিক বলে জানিয়েছে বিবিসি। মঙ্গলবার মৃতদেহগুলোর ময়নাতদন্তের প্রাথমিক ফল পাওয়া যেতে পারে। হোটেলের যে কক্ষে তীরবিদ্ধ তিনজনের মৃতদেহ মেলে সেখানে ব্যাগের ভেতর একটিসহ মোট তিনটি ক্রসবো পাওয়া যায়। বিছানায় মৃত পাওয়া যুগলের একজনের বয়স ৫৩; নারীটির বয়স ৩৩। তারা দুজনই রিনল্যান্ড-পালাটিনাটের বাসিন্দা।

পুরুষটিকে মাথায় দুটি এবং বুকে তিনটি তীরবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া গেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন সরকারি কৌঁসুলি ওয়াল্টার ফেইলের। হাত ধরে থাকা নারীটির মাথায় ও বুকে পাওয়া যায় একটি করে তীরের ক্ষত।

“এ দু’জনের ডবল বেড বিছানার সামনে শুয়ে থাকা অবস্থায় ৩০ বছর বয়সী নারীটির মৃতদেহ পাওয়া যায়। তার গলা ও চিবুকের মাঝ বরাবর ঢুকেছিল একটি তীর,” বলেছেন ফেইলের। উইটিঙ্গেনের ফ্ল্যাটে মৃত অবস্থায় পাওয়া দুই নারীর একজন হোটেলে পাওয়া ৩০ বছর বয়সী নারীটির বোন বলে জানিয়েছে জার্মানির একটি দৈনিক।

হোটেলে তীরবিদ্ধ ৩০ বছর বয়সী নারীটিকে ‘সি’ নামে অভিহিত করে দৈনিকটি বলছে, মার্চে এই নারী উইটিঙ্গিনের ফ্ল্যাটটির বাসিন্দা হিসেবে নিবন্ধিত হয়েছিলেন। হোটেলে তিন মৃত্যুর তদন্তে নেমে পুলিশ সোমবার উইটিঙ্গেনের ফ্ল্যাট থেকে বাকি দুই মৃতদেহের সন্ধান পায়। ফ্ল্যাটে মৃতদেহগুলো কতদিন ধরে পড়ে আছে তা স্পষ্ট হওয়া যায়নি।

“পাসাউর ঘটনা জানতে পেরে প্রতিবেশীরা পুলিশকে (৩০ বছর বয়সী নারীর) ফ্ল্যাটটির চিঠির বাক্স উপচে পড়ছে এবং ফ্ল্যাটটি থেকে অদ্ভূত গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে জানালে মৃতদেহগুলো উদ্ধার হয়,” বলেছেন এ কৌঁসুলি।

হোটেল কক্ষে মৃত অবস্থায় পাওয়া তিন জনের মধ্যে কী ধরনের সম্পর্ক ছিল তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ তিনজন একটি ডবল বেড ও একটি সিঙ্গেল বেডের ওই কক্ষটি তিন রাতের জন্য বুক করেছিলেন।

শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে হোটেলে এসে এ তিন নারী-পুরুষ অন্য অতিথিদের ‘শুভ সন্ধ্যা’ জানিয়ে পানি ও কোকাকোলার বেশ কয়েকটি বোতল নিয়ে তাদের দোতলার কক্ষে চলে যান। লম্বা দাড়িওয়ালা পুরুষ ও কালো পোশাক পরিহিত দুই নারীকে সেসময়ই ‘অদ্ভূত’ মনে হয়েছিল বলে জানান এ অতিথিরা।

বাভারিয়ান ওই হোটেলটিতে স্বল্প সময় অবস্থান করা অন্য এক অতিথিও স্থানীয় সংবাদমাধ্যম পাসাউয়ের নয়ে প্রেসেকে শুক্রবার রাতে হোটেলের পরিবেশ ‘একেবারেই নীরব’ ছিল বলে জানিয়েছেন। উইটিঙ্গেনের এক প্রতিবেশীও হোটেলে পাওয়া ৩০ বছর বয়সী নারীটিকে ‘অদ্ভূত’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন।

“সারাক্ষণই অস্বাভাবিক মনে হত, কালো পোশাক পরে থাকতেন সারাক্ষণ, অনেকটা গোথিক ঘরানার,” বলেছেন তিনি। পাসাউয়ের কাছে নদীর তীরে অবস্থিত বাভারিয়ান হোটেলটি উইটিঙ্গেনের সাড়ে ছয়শ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত।

পুলিশ পরে হোটেলটির বাইরে পার্ক করা একটি সাদা ট্রাক জব্দ করে; ট্রাকটিতে থাকা বেশ কয়েকটি স্টিকারের সঙ্গে একটি হান্টিং ক্লাবের যোগ আছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো। গাড়িটি রিনল্যান্ড-পালাটিনাটের ওয়েস্টাবাইডে নিবন্ধিত হয়েছিল।

ট্রাকটিতে থাকা একটি স্টিকারে ‘এফএমজি’ অক্ষরত্রয় পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে জার্মান সংবাদমাধ্যম। মার্কিন কোম্পানি ইস্টন হান্টিংয়ের বানানো ফুল, মেটাল জ্যাকেট, ক্রসবো তীরের সঙ্গে এ অক্ষরগুলোর যোগ আছে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

ক্রসবো দিয়ে ছোট ছোট তীর নিক্ষেপ করা যায়। জার্মানিতে মধ্যযুগীয় এ ধরনের অস্ত্র ব্যবহার করে শিকারে নিষেধাজ্ঞা আছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য