ইয়েমেনের লোহিত সাগরের তিনটি বন্দর থেকে সরে যেতে শুরু করেছে হুতি বিদ্রোহীরা। শনিবার এ খবর নিশ্চিত করেছে জাতিসংঘ। তবে সরকার সমর্থক এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা অভিযোগ করে বলেছেন, বিদ্রোহীরা বন্দর ছাড়ার ভান করছে। এএফপি, বিবিসি।

বন্দরগুলো থেকে বিদ্রোহীদের সরে যাওয়া ইয়েমেনে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সরকার ও ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীদের মধ্যে গত বছরে স্বাক্ষরিত অস্ত্রবিরতি চুক্তি বাস্তবায়নের প্রথম পদক্ষেপ। চুক্তিটি পুরোপুরি বাস্তবায়িত হলে ইয়েমেনে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

হুতিরা ওই বন্দরগুলো থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করেছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে জাতিসংঘের মুখপাত্র ফারহান হক বলেন, ‘হ্যাঁ। এটা শুরু হয়েছে।’

এএফপি’র এক আলোকচিত্রী সালিফ বন্দর থেকে হুতি যোদ্ধাদের চলে যেতে দেখেছেন। হুতিদের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, বন্দরগুলোকে কোস্টগার্ডের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। বিদ্রোহীরা প্রায় পাঁচ বছর ধরে এগুলো দখলে রেখেছিল।

তবে হোদেইদার গভর্ণর আল হাসান তাহের বলেন, ‘জাতিসংঘ ও সরকারি পক্ষের কোন পর্যবেক্ষণ ছাড়াই হুতি যোদ্ধারা হোদেইদা, সালিফ ও রাস ঈসা বন্দর হস্তান্তরের মাধ্যমে নতুন খেলা খেলছে।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য