আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধাঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে ঠিকাদার মিঠু মিয়ার বিরুদ্ধে বিভিন্ন জাতীয়, আঞ্চলিক, অনলাইন পত্রিকাসহ ফেসবুক আইডিতে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত সংবাদ প্রচার ও মানববন্ধন করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার বিকেলে উপজেলা সদরের ডাকবাংলো মার্কেটের নিজস্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে এক জনাকীর্ণ প্রতিবাদ সংবাদ সম্মেলন লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন ঠিকাদার মিঠু মিয়া ।

উপজেলা সদরের নুনিয়াগাড়ী গ্রামের বাসিন্দা ঠিকাদার মিঠু মিয়া সংবাদ সম্মেলনে তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমি পেশায় একজন ঠিকাদার। দীর্ঘদিন যাবৎ গাইবান্ধা জেলাসহ বিভিন্ন উপজেলায় সুনামের সহিত ঠিকাদারী কাজ করে আসছি। এরই ধারাবাহিকতায় পলাশবাড়ী উপজেলার সদর ইউনিয়নের হিজলগাড়ী মৌজার সাহেব মিয়ার বাড়ী হতে নজিম উদ্দিনের ব্রীজ পর্যন্ত ১২৯০ মিটার পাকাকরণ রাস্তার কাজ সাব-ঠিাকাদার করিয়া আসিতেছি।

এদিকে এলাকার কতিপয় সুযোগ সন্ধানী ব্যক্তি রাস্তায় নিম্নমানের কাজ হচ্ছে বলে সাংবাদিকদের মিথ্যা ও ভুল তথ্য দিয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় ছাড়াও অনলাইন পত্রিকা ও ফেসবুক আইডিতে সংবাদ প্রকাশ করে। এছাড়াও প্রকাশিত সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে আমি নাকি এলাকাবাসীকে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করেছি। যাহা গত ২৯ এপ্রিল তারিখে ওইসব সুযোগ সন্ধানী চক্রটি অসৎ উদ্দেশ্য চরিতার্থ্য ও আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার মানসে এলাকাবাসীকে উসকে দিয়ে একটি মানবন্ধনের আয়োজন করেন।

শিডিউল অনুযায়ী রাস্তার কাজ উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তরের দিক-নিদের্শনা ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উপস্থিতি এবং তদারকিতে কাজের গুণগত মান ঠিক রেখে যথাযথ নিয়মে কাজ করে যাচ্ছি। নি¤œমানের কাজ করার কোন প্রশ্নই উঠে না। যেহেতু আমি দীর্ঘদিন সুনামের সহিত ঠিকাদারী কাজ সম্পাদনা করে আসছি। তাই কাউকে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করার কোন প্রশ্নই উঠে না।

পাকা রাস্তায় নিম্নমানের কাজ হচ্ছে এবং এলাকাবাসীর মানববন্ধনের সংবাদটি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকাসহ গণমাধ্যমে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে বিষয়টি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে মিডিয়াকর্মীদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। এসময় তার ছোট ভাই ফিরোজ কবির, বিদ্যুৎ মিয়া, ভাতিজা মুন্না মিয়া ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক শাওন ছাড়াও উপজেলা কর্মকত বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য