দিনাজপুর সংবাদাতাঃ ফেনীর সোনাগাজীর নুসরাত জাহান রাফিসহ দেশব্যাপী ধর্ষণ ও হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার ও শাস্তি নিশ্চিতের দাবিতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখা জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে।

২৮ এপ্রিল রোববার ফেনীর সোনাগাজীর নুসরাত জাহান রাফিসহ দেশব্যাপী ধর্ষন ও হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার ও শাস্তি নিশ্চিতের দাবিতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখা জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে। স্বারকলিপি গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলম।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি কানিজ রহমান ও সাধারন সম্পাদক ড. মারুফা বেগম স্বাক্ষরিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বরাবর প্রেরিত স্মারকলিপিতে বলা হয়, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সদস্যরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে যে, একুশ শতকের আধুনিক যুগেও পুড়িয়ে মানুষ মারা ও বর্বরোচিত কায়দায় মানুষ খুন হচ্ছে। এসব ঘটনা অতি নিন্দনীয়।

কয়েকদিন আগে নুসরাতরে জের কাটতে না কাটতেই একইভাবে আগুনের বলি হলো চট্টগ্রামের শাহিনুর। দেশব্যাপী পুড়িয়ে মারা ও একাধিক ধর্ষণের মতো চাঞ্চল্যকর ঘটনায় দেশের আইন ও বিচারব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। মামলার তদন্ত ও বিচারের দীর্ঘসূত্রতার কারণে অপরাধীদের শাস্তি প্রদানে দ্বিধাদ্বন্দ্ব দেখা দিয়েছে। এ জাতীয় অপকর্মের উপযুক্ত বিচার এবং শাস্তি নিশ্চিত হলেই, তবে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না।

যৌন হয়রানি বন্ধে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হাইকোর্টের নির্দেশনা মোতাবেক ‘যৌন হয়রানি প্রতিরোধ কমিটি’ এর কার্যক্রম জোরদার করাসহ বিভিন্ন নির্দেশনা বাস্তবায়নে সরকারি উদ্যোগ প্রয়োজন। ধর্ষণ ও হত্যাকান্ডের সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক না কেন, সবাইকে আইনের মাধ্যমে দ্রুত বিচারের আওতায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। যদি কোনভাবে এরা আইনের পাশ গলিয়ে বেরিয়ে পড়ে তবে দেশ পরিচালনায় নিয়োজিত সরকার, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং বিচার বিভাগকেই সে দায়ভার নিতে হবে। আর তা না হলে, নুসরাত-শাহিনুরের মতো আরও প্রাণ অকালে ঝরতে থাকবে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, দিনাজপুর জেলা শাখা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহোদয়কে দেশব্যাপী খুন ও ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত অপরাধীদের দ্রুত বিচার ও শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানাচ্ছে। জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি প্রদানকালে মহিলা পরিষদের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য