আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট: লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় হামিদা খাতুন (৩৮) নামে তিন সন্তানের জননী ওড়না দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

রোববার( ২৮ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার চন্দ্রপুর গ্রাম থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত হামিদা বেগম উপজেলার চন্দ্রপুর গ্রামের খোরশেদ আহমেদের স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার পার্শ্ববর্তী গ্রাম লোহাকুচি গ্রামের হামিদ হোসেনের মেয়ে হামিদা খাতুনের সাথে ১৭ বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামী কাজের সন্ধানে ঢাকায় চলে যায়।

এর পর থেকে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মুঠোফোনে ঝগড়া হতো। রোববার সকাল মোবাইলে ঝগড়া হলে সবার অগোচরে চলে যায় হামিদা বেগম।

কিছুক্ষন পরে ছোট ছেলে হাবিবুর রহমান ঘরের ভিতরে মায়ের ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে স্থানীরা লাশটি নামিয়ে রাখে। পরে কালীগঞ্জ থানায় খবর দিলে পুলিশ লাশটিকে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: আরজু সাজ্জাত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হামিদা বেগম ঘরের ভিতরে গলায় ওড়না দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তদন্ত করে বাকিটা বুঝা যাবে কি কারণে আত্মহত্যা করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য