দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর -১ আসনের সংসদ সদস্য ও হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টে’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি বলেছেন, মন্দিরভিত্তিক প্রাক প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে ধর্মীয় এবং নৈতিক শিক্ষা জ্ঞানের মাধ্যমে সনাতনী চেতনা সৃষ্টি করা হচ্ছে। হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের কার্যক্রম এখন বাংলাদেশের সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে। প্রতিটি মন্দিরভিত্তিক শিক্ষার্থীদের হৃদয় সনাতনী ধর্মীয় শিক্ষার পরিবেশ গড়ে তোলা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হিন্দুদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রেখে তাদের আস্থা ফিরিয়ে এনেছেন। আমাদের প্রকল্পের মূল মন্ত্র হলো আমাদের সন্তানরা যাতে হিন্দু মৌলবাদ না হয়। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলোকে অসাম্প্রদায়ীক ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে উঠে।

২৭ এপ্রিল শনিবার দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে জেলা প্রশাসন এবং হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্ট জেলা কার্যালয় মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম দিনাজপুরের আয়োজনে মানবিক মূল্যবোধ ও নৈতিকতা সম্পন্ন জাতি গঠনে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম-৫ পর্যায়ে শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় জেলা কর্মশালা-২০১৯ এর উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন।

হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট এর সম্মানীত ট্রাস্টি বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বপন কুমার রায় এর সভাপতিত্বে সম্মানীত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের অতিরিক্ত সচিব রঞ্জিত কুমার দাস, জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলম, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চু, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারুকুজ্জামান চৌধুরী মাইকেল, বিরল উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম মোস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রমা কান্ত রায়, দিনাজপুর জেলা শাখার আহবায়ক সুনীল চক্রবর্তী ও জেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক বিধু ভূষন রায়।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন গাইবান্ধা জেলার সহকারী প্রকল্প পরিচালক মোঃ হামিদুর রহমান। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম দিনাজপুরের সহকারী পরিচালক মোঃ মশিউর রহমান। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন চিরিরবন্দর উপজেলার শিক্ষক তরুন কুমার রায়। সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন মাস্টার ট্রেইনার কানু বাসফর। জেলা কার্মশালায় মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষার শিক্ষকবৃন্দ, ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, জনপ্রতিনিধিবৃন্দ সহ সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য