প্রথমবারের মতো বৈঠকে বসেছেন উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উন ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। বৃহস্পতিবার রুশ দ্বীপে শুরু হয়েছে দুই নেতার বৈঠক। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

গত ১৮ এপ্রিল জানানো হয়, প্রথমবারের মতো কিম জং উনের সঙ্গে দেখা করবেন ভ্লাদিমির পুতিন। বলা হয়, চলতি মাসের শেষের দিকেই রাশিয়ায় এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। দুই নেতা পরমাণু পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করবেন।

রুশ বন্দরনগরী ভ্লদিভোস্টকে ‍দুই নেতাকে করমর্দন করতে দেখা যায়। বুধবার রাশিয়ায় পৌঁছালো তাকে স্বাগত জানান রুশ প্রতিনিধিদল। কিম বলেন, ‘আমি রাশিয়ায় পৌঁছানোর পর উষ্ণ অভ্যর্থনা পেয়েছি। আবারও বলছি এই বৈঠক ফলপ্রসূ হবে বলে আশাবাদী আমি।

কিম বলেন, আমি আশা করছি মাননীয় প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে আমি কোরীয় উপদ্বীপ নিয়ে প্রকৃত তথ্য তুলে ধরতে পারবো। আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কও আরও মজবুত হবে বলে আশা করছি আমি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন,মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কিমের দুইটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার পরও উত্তর কোরিয়ার ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় পরিবর্তন না আসায় পুতিনের সঙ্গে বৈঠক করতে যাচ্ছেন তিনি।

এতে করে বিদেশি সমর্থন আরও শক্তিশালী হবে বলে আশা তার। একদিন আগে ক্রেমলিনের মুখপাত্র ইউরি উশাখোভ বলেছেন, এই বৈঠবকের মুল আলোচ্যসূচিই থাকবে পরমাণু ইস্যু।

তিনি বলেন,‘বিগত মাসগুলোতে কোরীয় উপদ্বীপে পরিস্থিতি স্থিতিশীল হয়ে উঠেছে। এজন্য উত্তর কোরিয়াকে ধন্যবাদ দিতে হয় কারণ তারা পরমাণু পরীক্ষা বন্ধ করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য