সাত আত্মঘাতী হামলাকারী শ্রীলঙ্কার তিনটি হোটেল ও তিনটি গির্জায় হামলা চালায় বলে জানান তদন্ত কর্মকর্তারা। তাদের মধ্যে দুইজন কলম্বোর অভিজাত শাংরি লা হোটেলে হামলা চালান।

বাকিরা তিনটি গির্জা ও দুইটি হোটেলে আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় বলে জানান ফরেনসিক ডিভিশনের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আরিয়ানন্দ উইলিয়াংয়া।

শাংরি লা হোটেল ও কিংসবুরি হোটেল এবং সেইন্ট অ্যান্থনির চার্চ ও সেইন্ট সেবাস্টিয়ান ক্যাথলিক চার্চে স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটের দিকে একযোগে আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়।

৫ মিনিট পর সিনামন গ্র্যান্ড হোটেলের রেস্তোরাঁয় এবং ২০ মিনিট পর বাত্তিকালোয়ার জিয়ন রোমান ক্যাথলিক চার্চে একই ভাবে আত্মাঘাতী বোমা হামলা হয়।

তবে দুপুরের দিকে চতুর্থ হোটেল ও একটি বাড়িতে বোমা হামলা আত্মঘাতী ছিল কিনা তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

উইলিয়াংয়া বলেন, “এখনো তদন্ত চলছে।”

২০ মিনিটে ছয় জায়গায় হামলার প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টা পর ওই দুই হামলা হয়।

আরো হামলা হতে পারে আশঙ্কায় তারপর দেশ জুড়ে অনির্দিষ্টকালের কারফিউ ঘোষণা করে শ্রীলঙ্কা সরকার।

রোববারের হামলার সাথে জড়িত আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্ককে খুঁজে বের করতে শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা আন্তর্জাতিক সহায়তা চাওয়ার পরপরই দেশটির মন্ত্রীপরিষদের মুখপাত্র রাজিথা সেনারত্নে ওই হামলার জন্য ইসলামপন্থী ন্যাশনাল তৌহিদ জামাত (এনটিজে)র নাম প্রকাশ করেছেন।

তিনি বলেছেন এ হত্যাকাণ্ডের পেছনে এনটিজে আছে বলে মনে করা হচ্ছে। মিস্টার সেনারত্নে এর আগে ওই হামলার সাথে আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্ক আছে বলে মন্তব্য করছেন।

কলম্বোর পুলিশ পেত্তায় একটি বাস স্টেশন থেকে ৮৭টি লো এক্সপ্লোসিভ ডেটোনেটর উদ্ধার করেছে।
-বিবিসি

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য