আজিজুল ইসলাম বারী,লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ প্রকৌশলীকে মারধরের মামলায় লালমনিরহাট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি একেএম হুমায়ুন কবীরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২০ এপ্রিল) রাতে স্টেশন রোড থেকে তাকে পুলিশ গ্রেফতার করে। পরে তাকে আদিতমারী থানা পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে প্রকৌশলী জাকিরুল ইসলাম আদিতমারী উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়নের সরলখাঁ উচ্চ বিদ্যালয় এলাকায় কাজ পরিদর্শনে গেলে হামলার শিকার হন। জাকিরুল লালমনিরহাট সদর উপজেলার রাজপুর ইউনিয়নের চাংরা গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে। তিনি আদিতমারী উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী পদে কর্মরত আছেন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সরলখাঁ উচ্চ বিদ্যালয় এলাকায় ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স অভি এন্টারপ্রাইজের চলমান রাস্তার কাজ পরিদর্শনে যান প্রকৌশলী জাকিরুল। এ সময় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা হুমায়ুন কবির দলবল নিয়ে জাকিরুলকে বলেন যে কাজ নিম্নমানের হচ্ছে।

তাদের পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা না দিলে রাস্তার কাজ বন্ধ করে দেবেন তারা। এমনকি তিনি জাকিরুলকে অকথ্য ভাষায় গালি দিতে থাকেন। এর প্রতিবাদ করায় হুমায়ুন কবির ও তার লোকজন লাঠি দিয়ে প্রকৌশলী জাকিরুলকে মারধর করে আহত করেন। এসময় মেসার্স অভি এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি হাফিজুর রহমান ও তার সহকর্মী আশরাফুল ইসলাম ঠেকাতে গেলে তাদেরও পিটিয়ে আহত করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

ওইদিন রাতে একেএম হুমায়ুন কবির ও অজ্ঞাতনামা ১০/১৫ জনকে আসামি করে আদিতমারী থানায় মামলা করেন জাকিরুল।

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মাসুদ রানা বলেন, লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশের সহযোগিতায় হুমায়ুন কবীরকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য