গরম যতই চেপে ধরছে, ততই খারাপ হচ্ছে আপনার ত্বকের স্বাস্থ্য? সময়ে অসময়ে ব্রণ বেরোচ্ছে হঠাৎ করেই, রোদের গনগনে আঁচে লাল হয়ে যাচ্ছে ত্বক, র‍্যাশ হানা দিচ্ছে যখন-তখন? আচ্ছা, একবার ভেবে দেখুন তো, শেষবার ভাজাভুজি কখন খেয়েছেন? প্রবল গরমে হাঁসফাঁস লাগছে বলে বোতল বোতল কোল্ড ড্রিঙ্ক খাচ্ছেন, কিন্তু ঘাটতি রয়ে যাচ্ছে জলের বেলায়? ছুটির দিনগুলোয় এসির ঠান্ডায় বসে চলছে লুচি, কালিয়া, পোলাও, মাংসও? তা হলে আর আবহাওয়াকে দোষ দেবেন না, আসল সমস্যাটা আপনি নিজেই পাকিয়ে রেখেছেন যা ইচ্ছে তাই খাওয়াদাওয়া করে। ডায়েট ঠিক করুন, তা হলেই ত্বক আপনিই ভালো থাকবে!

জানেন কি, সুস্থ ত্বকের ভিতটা তৈরি হয় আপনার পাচনতন্ত্রে? এমন খাবার খেতে হবে যাতে প্রয়োজনীয় পুষ্টি মিলবে, সেই সঙ্গে শীতল থাকবে শরীর। তেল-মশলার অতিরিক্ত বাড়াবাড়ি এড়িয়ে যেতে হবে, খেতে হবে মরশুমি ফল আর সবজি। এই সময়ের প্রতিটি সবজি, অর্থাৎ লাউ, ঝিঙে, পটল, ঢ্যাঁড়শ, কুমড়োয় প্রচুর জল থাকে। তা আপনার শরীরে কোনও প্রদাহ হতে দেয় না।

যে ফলগুলি পাওয়া যায়, সেই আপেল, তরমুজ, আঙুর, শসা, পেয়ারা, লিচু, আম ইত্যাদির ক্ষেত্রেও একই কথা খাটে। সেই সঙ্গে মেলে প্রচুর ভিটামিন ও মিনারেল। তাই কোনও অবস্থাতেই এগুলি খাদ্যতালিকার বাইরে রাখবেন না। আম-কুমড়ো-পেঁপের হলুদ রঙে থাকে ক্যারোটিনয়েড, তা ঠেকায় সানবার্ন। বাতাবি, পাতিলেবু, মুসম্বির ভিটামিন সি বাড়ায় কোলাজেনের উৎপাদন, তা রোদে পোড়া ত্বকের হাইপার পিগমেন্টেশন ঠেকিয়ে রাখবে। তবে যে কোনও ফল-সবজিই বেশ খানিকক্ষণ জলে ভিজিয়ে রেখে ভালো করে ধুয়ে তারপর খাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা।

রেড মিট এক-আধদিন চলতে পারে, কিন্তু মাছ-চিকেন খান স্বচ্ছন্দে। ডিমের গরগরে কালিয়া বাদ, ভরসা রাখুন সেদ্ধ ডিমেই। ডিমের কুসুম ফেলবেন না, তার মধ্যে থাকে প্রাণিজ ক্যারোটিনয়েড লুটেইন, তা ত্বকের স্বাস্থ্যরক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ভালো ফ্যাটের জোগান দিক ঘি, বাদাম, অ্যাভোকাডো। জল খেতে ভুলবেন না, তবে কনকনে ঠান্ডা জল কিন্তু স্বাস্থ্যের পক্ষে খুব একটা ভালো নয়। অন্তত 8-10 গ্লাস জল খেতেই হবে।

এ সব ছাড়াও গরমে ত্বক ভালো রাখতে চাইলে তা পরিষ্কার, ঝকঝকে রাখার চেষ্টা করুন। খুব বেশি মেকআপ করবেন না, তাতে ত্বকের শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়ার ছিদ্র বন্ধ হয়ে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে ব্রণ হবে। রাতে অতি অবশ্যই মেকআপ তুলে ঘুমোতে যাবেন। মনে রাখবেন দিন-রাতের অনেকটা সময় আমরা এসির মধ্যে কাটাই গরমকালে, তাই ত্বক আর্দ্রতা হারাতে আরম্ভ করে দ্রুত। ময়েশ্চরাইজ় করার ব্যাপারে কোনও খামতি রাখবেন না। খাঁটি কোল্ড প্রেসড নারকেল তেল কিন্তু বডি অয়েল হিসেবে খুব ভালো, তা সানবার্নও ঠেকাতে পারে, তা জানেন তো?

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য