ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানে আজ (মঙ্গলবার) জাতীয় পরমাণু প্রযুক্তি দিবস পালিত হচ্ছে। এ উপলক্ষে ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি পরমাণু ক্ষেত্রে ১১৪টি নয়া সাফল্য উন্মোচন করেছেন। এর মধ্যে তেহরানে পারমাণবিক প্রযুক্তি প্রদর্শনীতে ১১০টি সাফল্য উন্মোচন করা হয়। অপর চারটি সাফল্য উন্মোচন করা হয়েছে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে।

ইরান সাফল্যের সঙ্গে অত্যাধুনিক ‘আইআর-সিক্স’ সেন্ট্রিফিউজ বসানোর কাজ শুরু করেছে। এটি ইরানের জন্য একটি বড় সাফল্য হিসেবে গণ্য হচ্ছে। এই সাফল্য আনুষ্ঠানিকভাবে আজ উন্মোচন করেন প্রেসিডেন্ট রুহানি। এছাড়া ইরান নিউক্লিয়ার মেডিসিন, নিউক্লিয়ার প্রযুক্তি ভিত্তিক ডায়াগনোসিস, কোয়ান্টাম ও এফটিআইআর ডিভাইসের ক্ষেত্রে নতুন কিছু সাফল্য অর্জন করেছে।

আজ পরমাণু প্রযুক্তি দিবস উপলক্ষে তেহরানে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে পরমাণু সাফল্যের নানা তথ্য তুলে ধরার পাশাপাশি বিদেশি মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত বিজ্ঞানীদের শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করা হয়েছে। সেখানেও ভাষণ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি।

২০০৬ সালের এ দিনে ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ড. মাহমুদ আহমাদিনেজাদ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মাধ্যমে পরমাণু জ্বালানি চক্র সংক্রান্ত প্রযুক্তি পুরোপুরি আয়ত্ব করার বিষয়টি ঘোষণা করেন। এরপর থেকে ইরানে ফার্সি ২০ ফারভারদিন জাতীয় পরমাণু প্রযুক্তি দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। ইরান বিদ্যুৎ উৎপাদন, চিকিৎসা, শিল্প ও কৃষিকাজে পরমাণু প্রযুক্তি ব্যবহার করে থাকে।
– খবর পার্সটুডে

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য