আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ঘর বাড়ি ভাঙচুর। দেশে অস্ত্রের আঘাতে ৮জন আহত হয়েছেন।

সোমবার(৫ এপ্রিল) বিকেলে আশংকাজনক অবস্থায় আহতদের আদিতমারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন, উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের চওড়াটারী গ্রামের মৃত তাহাজ্জুল হোসেন তাহেরের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৫০), লতিবকুল ইসলাম(৫৬), লুৎফর রহমান(৬০), লুৎফর রহমানের ছেলে রবিউল ইসলাম শুকু(২৬) ও মোহাম্মদ আলীর ছেলে শাহজাহান আলী(৩৫) ও তিনজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আহত রফিকুল ইসলাম গংরা নিজেদের পৈত্রিক সুত্রে পাওয়া ৫বিঘা জমি নিয়ে রিবোধ বাঁধে তাদের প্রতিবেশী আবুল বাশার কসাইয়ের সাথে। সেই জমিতে সোমবার দুপুরে গাছ লাগান লাগান রফিকুল ইসলাম। এ সময় আবুল বাশার কসাই লোকজন নিয়ে হামলা চালিয়ে রফিকুলকে মারপিট করে। তাকে বাঁচাতে এলে রফিকুলের ভাই ও ভাতিজাদেরও পিটিয়ে মারাত্বক জখম করে। এ সময় তাদের ঘর বাড়িও ভাঙচুর করে ছটকে পড়ে বাশার কসাইয়ের লোকজন।

পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে আশংকাজনক অবস্থায় ৫জনকে আদিতমারী হাসপাতালে ভর্তি করে এবং বাকীদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

হাসপাতালের বেডে রফিকুল ইসলাম জানান, নিজেদের জমিতে গাছ লাগাচ্ছিলেন এ সময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাশার কসাই লোকজন নিয়ে তার উপর দেশী অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ৮জনকে মারপিট করে এবং ঘর বাড়ি ভাঙচুর করে। চিকিৎসা শেষে হামলাকারী বিরুদ্ধে থানায় মামলা দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

আদিতমারী হাসপাতালে জরুরী বিভাগের দায়িত্ব থাকা উপ সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার সৌরভ দত্ত জানান, আহত ৫জনের মাথাসহ শরীর বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের অাঘাতে সেলাই দেয়া হয়েছে। এখন তারা আশংকামুক্ত চিকিৎসা চলছে।

আদিতমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মাসুদ রানা জানান, বিষয়টি তার জানা নেই। অভিযোগ দিলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য