মো: জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিককরণের জন্য সম্প্রসারণ কাজের ফিল্ড বুক তৈরীসহ সার্বিক কার্যক্রম দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে স্মরণকালের বৃহত্তম মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৭ এপ্রিল (রবিবার) বেলা ৩ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত শহরের শহীদ স্মৃতি অম্লান চত্বর থেকে শহীদ ডা. জিকরুল হক রোড, মদীনা মোড় হয়ে শহীদ ক্যাপ্টেন মৃধা রোড শহীদ স্মৃতি পর্যন্ত এবং শহীদ তুলশীরাম সড়কের পৌরসভা মোড় হতে বঙ্গবন্ধু মোড় হয়ে সৈয়দপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে এ মানববন্ধন পালন করে সৈয়দপুরের সর্বস্তরের মানুষ।

মানববন্ধনে সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানববন্দর বাস্তবায়ন কমিটির আহবানে সাড়া দিয়ে আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ সংগঠন সমুহ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী, শ্রমজীবী সংগঠন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসায়ী সমিতি, ক্রীড়া সংগঠন, ক্লাব, স্কাউটস্ দল, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসহ প্রায় শতাধিক সংগঠনের ব্যানারে কয়েক সহ¯্রাধিক মানুষ অংশগ্রহন করে।

বেলা ৩টার পূর্বেই পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন পর্যায় থেকে দলে দলে লোকজন মানববন্ধনে যোগ দিতে শ্লোগান সহকারে উপস্থিত হয়। ২ ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে ৫টি পয়েন্টে রাজনৈতিক, মুক্তিযোদ্ধাসহ সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। সর্বশেষে মদীনা মোড়ে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র আখতার হোসেন বাদল।

বক্তব্য রাখেন, সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক ও সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন, পৌর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বাবু, সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার একরামুল হক, সৈয়দপুর কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) সাখাওয়াত হোসেন খোকন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আজমল হক সরকার ও সানজিদা বেগম লাকী, সৈয়দপুর পৌরসভার কাউন্সিলর ও সৈয়দপুর রাজনৈতিক জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক এরশাদ হোসেন পাপ্পু, জাসদ নেতা আজিজুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক দিলনেওয়াজ খান। এছাড়া অংশগ্রহণকারী সংগঠনসমুহের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দসহ কর্মী-সমর্থক ও সাধারণ সৈয়দপুরবাসীও উপস্থিত ছিল।

আলোচসা সভা শেষে নেতৃবৃন্দ সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ৩টি দাবি সম্বলিত স্বারকলিপি প্রদান করেন। এসময় সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি ও সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন দাবি সমুহ উল্লেখ করে বলেন, বিমানবন্দরের জন্য জমি অধিগ্রহণের ফলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর মধ্যে ১২০টি হিন্দু ও ৪৭টি মুসলিম পরিবার সম্পূর্ণরুপে বাস্তুভিটাহীন হয়ে পড়বে।

এ পরিবারগুলোকে সরকারী খাস জমিতে বহুতল ভবন নির্মাণ করে পূণর্বাসন এবং ইপিজেড সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে। বিমানবন্দর পশ্চিমপাড়া জমি সমুহ পূর্ণ রেকর্ড করণ করতে হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য