ব্রুনাই সর্বদা আল্লাহর কাছে অনুগত থাকবে। এছাড়া আমার দেশ শরীয়াহ আইনে চলবে। ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসানাল বোলখিয়া এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।

এছাড়া সুলতান হাসানাল বলেন, যারাই ব্রুনাই ভ্রমণ করবে তারাই দেশটির নিরাপদ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ দেখে মুগ্ধ হবে। আর এটাই হলো শরীয়াহ আইনের দেশ ব্রুনাই।

গত ৩ এপ্রিল থেকে ব্রুনাইয়ে শরীয়াহ আইন চালু হয়েছে। সমকামিতা, পরকীয়া, ব্যাভিচার ও মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে কটাক্ষ করলে উন্মুক্ত মঞ্চে পাথর ছুড়ে মৃত্যুদণ্ডের আইন রয়েছে তাতে।

এছাড়া কেউ চুরি করলে তার হাত কেটে দেওয়া হবে বলেও আইন জারি করা হয়।

তবে এই আইন জারি করতে যাওয়ায় দেশটি আন্তর্জাতিক মহলে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে। ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক অনেক মানবাধিকার সংস্থা ব্রুনাইয়ের এমন আইনের কড়া বিরোধিতা করছে।

জাতিসংঘ ইতিমধ্যে ব্রুনাইয়ের এমন আইনকে ‘নিষ্ঠুর ও অমানবিক’ হিসেবে আখ্যায়িত করে এর কড়া সমালোচনা করেছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থার প্রধান মিশেল ব্যাচলেট সোমবার এক বিবৃতিতে ব্রুনাইয়ের এই আইন কার্যকর না করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

আরো পড়ুন: রুয়ান্ডায় ১০০ দিনে যেভাবে ৮ লাখ মানুষ হত্যা করা হয়

এছাড়া দেশটির সুলতানের বিভিন্ন দেশে অবস্থিত কয়েকটি হোটেল বয়কটে্র ডাক দিয়েছে অনেক তারকা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য