দিনাজপুর সংবাদাতাঃ জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান (সরকারের সচিব) ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার বলেছেন, সাধারন জনগনের স্বার্থ বিঘিœত করে নদীর জমি কাউকে দেওয়া যাবে না। পাশাপাশি কৃষি জমিতে কলকারখানা বা ইট ভাটা করা যাবে না।

তিনি বলেন নদী, খাল-বিল এর জায়গা দখল করে মসজিদ, মন্দির, ব্যবসা প্রতিষ্টান, স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্টান গড়ে তুলে প্রয়োজনে সেগুলো উচ্ছেদ করতে হবে।

৩ এপ্রিল বুধবার দুপুর আড়াই টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে দিনাজপুর জেলার নদ-নদীর সমস্যা সমাধান, উন্নয়ন ও সংরক্ষন বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলো বলেন।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ জয়নুল আবেদীনের সভাপতিত্বে অন্যান্যর মধ্যে বক্তব্য রাখেন কমিশনের সার্বক্ষনিক সদস্য মোঃ আলাউদ্দিন, দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোডের নিবাহী প্রকৌশলী ফইজুর রহমান, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, জেলা কমিটির সদস্য শাহাদৎ হোসেন শাহ্ দিনাজপুর ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম। সভায় দিনাজপুরের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ২০টি নদীর প্রবাহ এবং গতিপথ ফিরিয়ে আনতে সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সিদ্বান্ত হয়।

সভায় জেলা নদী রক্ষা কমিটির সদস্য ,সকল উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা, সহকারী কমিশনার (ভূমি), সার্ভেয়ার, জেলার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য