দিনাজপুর সংবাদাতাঃ নওগাঁর পত্নীতলা থেকে উদ্ধার হওয়া বিলুপ্তপ্রায় পুরুষ নীলগাইটি দিনাজপুরের রামসাগর জাতীয় উদ্যানে নিয়ে আসা হয়েছে। নীলগাইয়ের পরিচর্যাসহ অন্যান্য বিষয়ে রামসাগর কর্তৃপক্ষকে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন দর্শনার্থীরা।

মঙ্গলবার ভোরে পুরুষ নীলগাইটিকে একটি বড় পিকআপ ভ্যানে করে রামসাগরে নিয়ে আসা হয়।

রামসাগর জাতীয় উদ্যানে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নতুন পুরুষ নীলগাই আসার কথা শুনে অনেক দর্শনার্থী ভীড় করছেন কৃত্রিম বনের দিকে। পুরাতন নীলগাইটি স্বাভাবিক থাকলেও নতুন নীলগাইটি একটু চুপচাপ থাকছে। সব সময় মানুষের আড়ালে গিয়ে লুকিয়ে থাকছে।

রামসাগর জাতীয় উদ্যানের তত্ত্বাবধায়ক আব্দুস সালাম তুহিন জানান, সোমবার নওগাঁর পতœীতলা উপজেলার নির্মইল ইউনিয়নের কালুপাড়া সীমান্ত থেকে এই পুরুষ নীলগাইটি উদ্ধার করা হয়। রাতেই নীলগাইটি দিনাজপুরের রামসাগরে নিয়ে আসা হয়।

ইতিপূর্বে এই আরো ১টি পুরুষ নীলগাই রয়েছে। সেখানে নতুন পুরুষ নীলগাইটিকে সেখানে রাখা হয়েছে। বর্তমানে এই পুরুষ নীলগাইটি নিয়ে দেশে বিলুপ্ত প্রায় ২টি নীলগাই রয়েছে।

জানা গেছে, এর আগে ২০১৮ সালের ৫ সেপ্টেম্বর ঠাকুরগাঁও জেলার রানীশংকৈল উপজেলার সীমান্ত এলাকা থেকে ১টি নারী নীলগাই উদ্ধার করা হয়। পরে তার সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে বন বিভাগ দিনাজপুর রামসাগর জাতীয় উদ্যানে চিত্রাহরিণের খাচায় রাখা হয়।

এরপর চলতি বছর ২২ জানুয়ারী নওগাঁর জেলার মান্দা উপজেলায় ১টি পুরুষ নীলগাইটি উদ্ধার করে বন বিভাগ। পুরুষ নীলগাইটি উদ্ধারের সময় এলাকাবাসীর মারধরে আহত হওয়া প্রথমে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের চিড়িয়াখানায় তাদের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা করা হয়।

পরবর্তীতে বিলুপ্তপ্রায় এই নিলগাইয়ের বংশবিস্তারের জন্য রামসাগরের নারী নীলগাইটির সঙ্গী করার জন্য রাজশাহী থেকে পুরুষ নীলগাইটি দিনাজপুরে আনা হয়।

২ পুরুষ ও নারী নীলগাইয়ের জন্য তৈরী করা হয় কৃত্রিম বন। কিন্তু রামসাগর কর্তৃপক্ষের অবহেলায় গত ১৬ মার্চ বিকেলে নারী নীলগাইটি মারা যায়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য