আনোয়ার হোসেন আকাশ, রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) থেকেঃ রাণীশংকৈল পৌরশহরে মশার উৎপাত চরমহারে বেড়েছে। কয়েক বছর ধরেই চালু নেই নিধন প্রক্রিয়া। মশার অত্যাচারে পৌরবাসী অতিষ্ট হয়ে পড়েছে।

শীতের মৌসুমে মশার উপদ্রব কম থাকলেও দিনের তাপমাত্রা বাড়ার সাথে সাথে মশার উপদ্রব বাড়তে থাকে।

ময়লা আবর্জনা, বাড়ির আশ পাশে ব্যবহার করা পানি জমে থাকার কারনে মশার বংশ বিস্তার বেড়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

তাছাড়াও ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকার কারনকেও মশা বৃদ্ধির ব্যপারে পরিবেশবীদগণ গুরুত্ব দিচ্ছেন । এখন পর্যন্ত পৌর কর্তৃপক্ষ মশা নিধনের কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি।

মশার উপদ্রব ভিষনহারে বেড়ে যাওয়ার ফলে ছাত্র-ছাত্রীরা ঠিকমতো লেখাপড়া করতে পারছে না। দরিদ্র পরিবারের লোকজন সাংসারিক খরচ যোগান দিতে হিমশিম খেয়ে মশা তাড়ানোর জন্য কয়েলের পয়সা ঠিকমতো যোগান দিতে পারছে না। গরমের দাবানলে মশার কামড়ের যন্ত্রণায় ঠিকমত লেখাপড়া করতে পারছেনা শিক্ষার্থীরা।

এ ব্যাপারে পৌর মেয়র আলমগীর সরকার জানান, সরকারিভাবে মশা নিধনের ব্যাপারে কোন বরাদ্দ নাই । তবে পৌরসভার আর্থিক অনুদানে মশা নিধনের কার্যক্রম দ্রুত হাতে নেওয়া হবে।

বিগত অর্থ বছরে পৌর কর্তৃপক্ষ মশা নিধনের কোন কার্যক্রম গ্রহণ না করায় পৌরবাসী অনেকটায় ক্ষুব্ধ। পর্যাপ্ত বরাদ্দ নিশ্চিত করে পৌরবাসীকে মশার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট পৌরবাসীর আকুল আবেদন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য