মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাঁওঃ ঠাকুরগাঁওয়ে স্কুলছাত্রীর শরীরে এসিড নিক্ষেপের মামলার এক মাস পেরিয়ে গেলেও প্রধান আসামী আমজাদ হোসেনকে গ্রেপ্তার করছে না পুলিশ। সুষ্ঠু বিচার পাবে কিনা এনিয়ে চিন্তিত বাদীপক্ষ।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে সদর উপজেলার আখানগর ইউনিয়নের গুঞ্জুরাহাটে স্কুলছাত্রী তানজিনা আক্তারের শরীরে এসিড নিক্ষেপ করে প্রতিবেশি আমজাদ হোসেন। এতে করে ওই স্কুলছাত্রীর শরীরের ২০ শতাংশ ঝলসে যায়।

এ ঘটনায় ২৫ ফেব্রুয়ারি স্কুলছাত্রীর বাবা মোস্তফা বাদী হয়ে আমজাদ হোসেনকে প্রধান আসামী করে আরও ৫ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলার দ্বিতীয় আসামী ফরহাদ হোসেনকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এদিকে মামলার এক মাস অতিবাহিত হলেও পুলিশ অজ্ঞাত কারণে প্রধান আসামী আমজাদ হোসেনকে গ্রেপ্তার করছে না। অথচ আসামী এলাকার প্রকাশ্যে দিব্বি চলাফেরা করছে।

মামলার বাদী মোস্তফা বলেন, প্রধান আসামী এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরছে। আমরা পুলিশকে গ্রেপ্তার করার জন্য বার বার বলেছি; কিন্তু তারা কথা শোনেনা। কি কারণে পুলিশ আমজাদকে গ্রেপ্তার করছে না বুঝতে পারছি না। তাহলে আমরা কি সুষ্ঠু বিচার পাবো না?

স্কুলছাত্রীর শরীরে এসিড নিক্ষেপকারী আমজাদ হোসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে পাহাড় সমান। তিনি গ্রামের মানুষদের বাড়িঘর ভাংচুর-লুটপাট, জোরপূর্বক জমি দখল, মামলার হুমকিসহ বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত রয়েছেন।

মামলার প্রধান আসামী আমজাদ হোসেনের মুঠোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

এ ব্যাপারে রুহিয়া থানার ওসি প্রদীপ কুমার রায় বলেন, আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি মামলার প্রধান আসামীকে গ্রেপ্তার করার জন্য। খুব শীঘ্রই তাকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য