দিনাজপুর সংবাদাতাঃ কয়েক গ্রামের কোনো নলকূপেই পানি ওঠে না। অনাবৃষ্টি আর ভূগর্ভস্থ পানির স্তর নেমে যাওয়ায় বীরগঞ্জ উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নে এ অবস্থা বিরাজ করছে।

এ খরা মৌসুমে এ সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করায় খাবার পানি সংকটে ভূগছে মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের মানুষ।

এতে খাবার পানিসহ নিত্য প্রয়োজনে কয়েক কিলোমিটার দূর হতে গভীর নলকুপের পানি সংগ্রহ করতে হয় ওই এলাকার মানুষকে। অনেক পুকুরের অপরিচ্ছন্ন পানি দিয়ে রান্না-বান্নাও করছে কেউ।

একই পুকুরে মানুষ এবং গরু ছাগল গোসলও করতে দেখা গেছে। আবার কিছু এলাকায় রাতের বেলা নলকুপে একটু করে পানি উঠায় রাত জেগে পানি সংগ্রহ করছে অনেকে।

তবে উপজেলা প্রশাসন বলছেন এরইমধ্যে কিছু পদক্ষেপ নেয়ায় খাবার পানির সংকট কমে যাবে। এরইমধ্যে সংকট নিবারনে ১৫টি ‘তারা টিউবওয়েল’ চালু করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ উপজেলার লক্ষিপুর গোলঘরা এলাকায় দেখা যায়, দূর দুরান্ত থেকে মহিলারা হাড়ি পাতিল, বালতি, কলস নিয়ে পানি সংগ্রহ করছে।

এ সময় দেখা যায়, লক্ষিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নলকুপটিতে পানি উঠছে। মহিলারা লাইন ধরে পানি সংগ্রহ করছে।

পানি সংগ্রহ করতে আসা আরতি বালা (৫৫) বলেন, বা সাত দিন ধরি গাও ধওনাই জল বেগরে। হামার যে কি জিল¬তি শুরু হইছে, একদিন থাকিলে বুঝা পাবেন।

লক্ষিপুর উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্র আলম হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম জানায়, গত ১ মাসে তারা ৩-৪দিন গোসল করেছেন। পরিবারের জন্য পানি জোগাড় করতে রাত জেগে নলকুপ চাপেন। বছরের শুকনা মওসুমে খাবার পানি সংকট দেখা যায়।

বীরগঞ্জ উপজেলার মহাম্মদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোপাল দেব শর্মা সাংবাদিকদের জানান, এই ইউনিয়নে কোন শ্যালো মেশিন বা হস্ত চালিত নলকুপে পানি উঠছেনা।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের বীরগঞ্জ উপজেলার প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির সাংবাদিকদের জানান, এ অঞ্চলে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কম হওয়ায় বেশ কিছু এলাকায় পানি উঠছেনা।

আমরা ইতমধ্যে ১৩টি নলকুপ বোরিং করেছি। স্থানীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল ডিও দিয়েছেন। আমরা হেড অফিসে বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছি।

বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইয়ামিন হোসেন জানান, এ অবস্থা জানার পর আমিসহ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর ও বরেন্দ্র উন্নয়ন প্রকৌশলী, উপজেলার চেয়ারম্যানসহ সবাই ওই এলাকা পরিদর্শন করেছি।

এরইমধ্যে ওই এলাকায় খাবার পানি সংকট নিবারনে ১৫টি ‘তারা টিউবওয়েল’ চালু করা হয়েছে। ওই এলাকার মাহানপুর বাজার এলাকায় পানি সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আরও ‘তারা টিউবওয়েল’ বসানোর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।

পাশাপাশি আরও পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে যাতে করে ওই ইউনিয়নের পানি সংকট কেটে যায়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য