আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে গুরুতর অসুস্থ ছেলেকে বাঁচাতে অসহায় ভিক্ষুক পরিবারের এক মায়ের মানবিক আকুতি। চিকিৎসা ব্যয়ে প্রয়োজন ন্যুনতম ৫ লাখ টাকার প্রয়োজন। কোন সহায় সম্বল না থাকায় ছেলের চিকিৎসা ব্যয় নির্বাহের বিষয়টি নিয়ে পরিবারটি দিশাহারা হয়ে পড়েছেন।

উপজেলা সদর ইউনিয়নের ছোটশিমুলতলা গ্রামের কলিম উদ্দিন ওরফে কলিম ফকির। কোন সহায় সম্বল না থাকায় জন্মগত হাবাগোবা স্বভাবের কলিম ফকির দীর্ঘ বছর ধরেই ভিক্ষা করেই জীবিকা নির্বাহ করেন। নিত্যদিন সকাল থেকে দিনভর এলাকার এবাড়ী-ওবাড়ী, শহর-বন্দর, রাস্তাঘাট ও পথে-প্রান্তরে পথচারিদের নিকট হাত পেতে ভিক্ষা করেন। স্ত্রী মজিদা খাতুন আশেপাশে স্বচ্ছল পরিবারের বিভিন্ন বাড়ীতে ঝিঁয়ের কাজ করে যা পান তাই দিয়েই কোন রকমে অর্ধাহারে-অনাহারে চলে যায় ভিক্ষুক-ঝিঁ দম্পতির পারিবারিক ভরণপোষণ।

ভিক্ষুক-ঝিঁ দম্পতির ২ মেয়ে ও ২ ছেলেসহ ৬ সদস্যের পরিবার।নেই কোন জমি-জমা। এমনকি পরিবারটির মাথাগোঁজার মত এক চিঁলতে বসতভিটাও নেই।অভাবের তারনায় প্রতিটি মূহুর্ত্বই যেন তাদের চোখে-মুখে ভর করছে এক অসহনীয় অনামিশার ছাপ।

বয়সের ভারে নুইয়েপড়া ভিক্ষুক কলিম কিংবা স্ত্রী মজিদা খাতুন অসুস্থতায় বিছানায় থাকলে সেদিন তাদের গোটা পরিবারটিকে থাকতে হয় না খেয়ে। ওই গ্রামের মৃত শ্বশুর মজিবরের বসতভিটায় কোন রকমে খরকুটোর একটি কুঠিরে বসবাস করেন পরিবারটি।

মড়ার উপর খাঁড়ার ঘাঁ। সময়ের আকস্মিকতায় পরিবারটির ছোট ছেলে মাহাবুব (১৪) গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। উপায়ন্তর না পেয়ে হাত পেতে ভিক্ষা করে সঞ্চিত অর্থ দিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শে ছেলের নানা পরীক্ষা-নীরিক্ষায় জানা যায় তার হার্ট ফুটোসহ বুকের হাড় ক্ষয় হয়ে যাচ্ছে।

চিকিৎসকরা জানান, অসুস্থ্য মাহবুবের দ্রুত অপারেশন প্রয়োজন। অপারেশন সফল হলে সে সুস্থ্য হতে পারে। কিন্তু মোটা অর্থের প্রয়োজন।একটি কানাকড়িও হাতে নেই। যা ছিল তা ইতোমধ্যেই শেষ। একদিকে পরিবারের ভরণপোষণ ও চিকিৎসাসহ ওষুধপত্র। অতঃপর ব্যয়বহুল অপারেশন। রংপুর কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কার্ডিওলজী বিভাগের প্রধান হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. একেএম হানিফ চৌধুরির তত্বাবধানে চিকিৎসাধীন রয়েছে মাহাবুব।

পরিবারটির পক্ষে ৫ লাখ টাকার সংস্থান অসম্ভব হয়ে পড়েছে। মা মজিদা বেগম ছেলের জীবন বাঁচাতে শ্রষ্টার করুনাসহ এলাকার সাংসদ, অন্যান্য জনপ্রতিনিধি, দানশীল দয়ালু ব্যক্তিত্ব, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা প্রশাসনসহ সর্বোপরি মানবতার মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ দেশ-বিদেশের বিত্তবানদের নিকট মানবিক আর্থিক সাহায্য-সহযোগিতা কামনা করেছেন। সাহায্য পাঠাবার ঠিকানা মজিদা খাতুন, সঞ্চয়ী হিসাব নং-১০২১১১৭৬৭১ জনতা ব্যাংক লিঃ পলাশবাড়ী শাখা, গাইবান্ধা এবং সরাসরি বিকাশ -০১৩০২-১৫৭৬০২।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য