ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার পার্শবতি পার্বতীপুর উপজেলার পাতরাপাড়া গ্রামের মুন্নি আরা (১৬) নামে এক অন্তস্তা কিশোরী গৃহবধু বিষ (কিটনাশক) খেয়ে আত্ম হত্যার চেষ্ঠা করেছে।

সঙ্গে সঙ্গে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এসে ওই কিশোরী গৃহবধুকে বিষ মুক্ত করলেও, আশঙ্কায় পড়েছে ওই কিশোরী গৃহবধুর গর্ভে থাকা সন্তানের ভবিষৎ। চিকিৎসকগণ বলছেন ২৪ ঘন্টা পেরিয়ে না গেলে কোন সিদ্ধান্ত নেয়া যাবেনা।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার পার্বতীপুর উপজেলার হামিদপুর ইউনিয়নের পাতরাপাড়া গ্রামে। গ্রামবাসীরা জানায় পারিবারিক কলহের জেরধরে বেলা সাড়ে ১১ টায় আত্মহত্যার জন্য বিষ(কিটনাশক) পান করে গৃহবধু মুন্নি আরা।

বিষ পানে আত্মহত্যার চেষ্ঠাকারী গৃহবধুর মুন্নি আরা পাতরাপাড়া গ্রামের শাহিনুরের স্ত্রী ও একই গ্রামের মমিনুলের মেয়ে।

মুন্নি আরার পরিবারের সদস্যরা জানায় গত এক বছর পুর্বে মুন্নি আরার একই গ্রামের বাসীন্দা শাহিনুরের সাথে বিয়ে হয়, সেই সময় মুন্নি আরার বয়স ছিল মাত্র ১৫ বছর। বর্তমানে মুন্নি আরা ৬ মাসের গর্ভবতী।

ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসীক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার সঞ্জয় কুমার বলেন, অল্প বয়সে বিয়ে দেয়ার কারনে তাদের দাম্পত্ত জিবনটি শুখের হয়ন্,া এই সকল কিশোর-কিশোরীরা জানেনা তাদের মা-বাবা হওয়ার দায়িত্ব ও কর্তব্য কি কি, এই কারনে এই রকম অনাকাংখিত ঘটনা ঘটে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য