আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধা শহর সংলগ্ন রেলওয়ে ভেরামারা ব্রীজের পাশেই শহর রক্ষা বাঁধ ঘেঁষে মাটি কেটে নিয়ে অবৈধভাবে ব্যবসা করছে একটি চক্র। বাঁধ ঘেঁষে মাটি কাটায় এবং ট্রাক্টর দিয়ে পরিবহন করার ফলে খোলাহাটি ইউনিয়নের পশ্চিম কোমরনই এলাকার ঘাঘট নদীর শহর রক্ষা বাঁধটি হুমখির মুখে পড়েছে।

ফলে আগামী বর্ষা মওসুমে নদীতে পানি বৃদ্ধি পেলে তীব্র স্রোতে বাঁধটি ভেঙ্গে গিয়ে অকাল বন্যায় গাইবান্ধার শহরতলি এলাকার খোলাহাটি ইউনিয়নের ব্যাপক এলাকা বন্যা কবলিত হতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। দীর্ঘদিন থেকে এই এলাকায় অবৈধভাবে মাটি কাটার কাজ অব্যাহত থাকলেও পানি উন্নয়ন বোর্ড, জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন এব্যাপারে কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন না।

জানা গেছে, ওই এলাকার প্রভাবশালী লোকের ছত্রছায়ায় মাটির ব্যবসায়ির এই চক্রটি বাঁধ সংলগ্ন নদী থেকে মাটি কেটে ট্রাক্টর দিয়ে পরিবহন করে বিভিন্ন জায়গায় তা বিক্রি করছে। এমনকি ট্রাক্টর চলাচলের সুবিধার জন্য বাঁধের মাটি কেটে চলাচলের রাস্তা তৈরী করে দেয়া হয়েছে। তদুপরি ট্রাক্টরের অবাধ চলাচলের ফলে রাস্তা-ঘাটের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে।

ফলে ওই বাঁধের বিভিন্ন স্থানে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে এবং গোটা বাঁধ জুড়েই ধুলাবালি জমেছে। ফলে বাঁধ দিয়ে হালকা যানবাহন ও পথচারি চলাচল মারাত্মকভাবে বিঘিœত হয়েছে। ওই এলাকায় মাটি কাটা অব্যাহত থাকলে অদুর ভবিষ্যতে রেলওয়ে ভেরামারা ব্রীজটিও হুমকির মুখে পড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এব্যাপারে খোলাহাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শেখ সামাদ আজাদ এবং গাইবান্ধা সদর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) অফিসে এলাকাবাসির পক্ষ থেকে একাধিকবার অভিযোগ করা সত্ত্বেও তারাও কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য