primary-teacherসৈয়দ শিমুল, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে ৪৭জন গরীব অসহায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম -নৈশ প্রহরী নিয়োগ হওয়ায় নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে । জানা গেছে জেলার বৃহৎ উপজেলা নবাবগঞ্জের ইতিহাস ঐতিহ্যে ভরপুর থাকলেও বেকার যুবক যুবতী কর্মসংস্থানের অভাবে বেকার জীবনের অভিশাপে দারিদ্রতার নিমর্ম কষাঘাতে দিন যাপন করে অনেক পরিবার ।

অনেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ও এস.এস .সি পর্যন্ত লেখাপড়া অর্জন করে আর অগ্রসর হতে পারেনি । ফলে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত আয়ের পরিবারে ঐ জনগোষ্টি জীবন জীবিকা পরিচালিত হচ্ছে অনেক কষ্টে । কেউ কৃষি শ্রমিক , কোন ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে কর্মচারী , অটোরিকসা চালিয়ে আবার কেউবা ধার দেনা করে কিছু অর্থ পুজি সৃষ্টি করে বিদেশে বিভিন্ন শ্রেণীর কর্ম করে চলছে । নিম্ন বিত্ত পরিবারে এ লোকজন দের অনেকে খোঁজ রাখেন না ।

এ দিকে বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্টানে ৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারী নিয়োগেও চলে ব্যপক মোটা অংকের নিয়োগ বাণিজ্য । এখান থেকেও চাকরির সুযোগ মিলছে না ওদের । সরকার ইতোমধ্যেই দেশের সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম- নৈশ প্রহরী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হলে উপজেলার সরকারি ৬৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৪৬টি প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ সম্পন্ন হয়েছে বলে নবাবগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের কার্যলয় সূত্রে জানা গেছে।

উপজেলার হরিল্যাখুর এস এম আর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান বিধি অনুযায়ী নিয়োগ দেয়া হয়েছে । অপর দিকে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির (সাবেক) সভাপতি মোঃ মতিনুর রহমান ও সভাপতি গোলাম রব্বানী , গরীব পাড়া সরকারি প্রাথিমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ লুৎফর রহমান জানান এ নিয়োগে ৪৬ জন পরিবার খুঁজে পেয়েছে নতুন কর্মসংস্থান ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য